বিজ্ঞাপন

প্রথমে কাতারে আগেভাগে গিয়ে অনুশীলন ও দুটি প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলার কথা ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু বাংলাদেল ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) সেটির ব্যবস্থা করতে পারেনি। এরপর সিদ্ধান্ত হলো সৌদি আরবে গিয়ে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার। সেখানে যাওয়ার কথা ছিল গতকাল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে জানা গেল, সৌদি আরবে গিয়ে কোয়ারেন্টিনে থাকার ব্যাপারটির সুরাহা হয়নি। তাই গতকাল খুব ভোরে স্থগিত হয়ে যায় যাত্রা। এখন তো সৌদি যাত্রাই বাতিল হয়ে গেছে। এখন জাতীয় দল ২৭ মে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের সঙ্গে অনুশীলন ম্যাচকে সম্বল করেই কাতার যাবে। জামালের মতে, যেখানে আফগানিস্তান মাসখানেক ধরে অনুশীলনে আছে এবং ইন্দোনেশিয়ার বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে, সেখানে বাংলাদেশ কোনো বিদেশি দলের বিপক্ষেই খেলার সুযোগ পাচ্ছে না।

default-image

জামালের মতে ব্যাপারগুলো জাতীয় দলের জন্য ক্ষতিকর। পরিকল্পনাতেও গলদ দেখছেন তিনি, ‘ক্ষতির ব্যাপারটি আছে। আফগানিস্তান এক মাস আগে অনুশীলন শুরু করেছে। ভারতও আগে শুরু করেছে। ওরা এরই মধ্যে পরিকল্পনা করেছে কার কার সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে। আজ ইন্দোনেশিয়ার সঙ্গে খেলবে আফগানিস্তান। ওরা তো আগে থেকেই ভালো পরিকল্পনা করেছে। আর আমরা তো মাত্র পরিকল্পনা করতেছি। নির্দিষ্ট কোনো দলের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ নেই।’

ভারত ও আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয়ের আশার কথা শুনিয়েছিলেন জামাল। কিন্তু এই প্রস্তুতি নিয়ে তাদের হারানো সম্ভব কি না, এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘প্রস্তুতি ম্যাচ খেললে অভাবের জায়গাগুলো বোঝা যায়। এখন তো ম্যাচ হচ্ছে না। খেলোয়াড়দের তো মন খারাপ হয়েছে। আমাদের মধ্যে এগুলো আলোচনা হচ্ছে। সবচেয়ে ভালো হতো অন্য দেশের সঙ্গে খেললে। দুই বছর আগে দুইটা ম্যাচ ভুটানের সঙ্গে খেলে ভারত ও কাতারের সঙ্গে খেলেছি, ভালো হয়েছে। এক মাস অনুশীলন করেছি।’

default-image

এমনিতেই দলের প্রস্তুতি ভালো না, এর মধ্যে দলে নতুন সমস্যা। মোহাম্মদ ইব্রাহিমের পর বিশ্বস্ত সূত্রের খবর, মাহবুবুর রহমান সুফিলও নাকি করোনায় আক্রান্ত। প্রস্তুতিহীনতা, পরিস্থিতি—সবমিলিয়ে খুব ভালো অবস্থায় থেকে কাতার যেতে পারছে না বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল।

কাতারে ৩ জুন আফগানিস্তান, ৭ জুন ভারত আর ১৫ জুন ওমানের বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন