default-image

স্টিভ ব্রুসের অধীনে লিগ শুরু করেছিল নিউক্যাসল। মৌসুমের এক-পঞ্চমাংশ যেতে না যেতেই মালিকানা বদলে যাওয়ার খবর পেয়েছেন ব্রুস। সঙ্গে সঙ্গে চাকরি হারানোর শঙ্কা পেয়ে বসেছিল তাঁকে। পরাশক্তি হতে চাওয়া কোনো ক্লাব তাঁকে কোচ হিসেবে রাখবে না, এটা বুঝতে পেরেছিলেন। আর মাঠের পারফরম্যান্সও তাঁর ছিল যাচ্ছেতাই। লিগ কাপে প্রথম ম্যাচেই হেরে বিদায় নিয়েছে নিউক্যাসল। আর লিগে ৮ ম্যাচের ৫টিতেই হার। ড্র করেছেন তিনটি।

default-image

অন্তর্বর্তী কোচের পর এখন দায়িত্ব নিয়েছে এডি হাও। তাঁর অধীনেও খুব একটা ভালো নেই নিউক্যাসল। দুই ম্যাচের একটি ড্র করেছেন, অন্যটি হেরেছেন। প্রিমিয়ার লিগে এখন পর্যন্ত সাতটি ম্যাচ ড্র করা নিউক্যাসল হেরেছে বাকি সাত ম্যাচে। লিগে অন্য সব দলই অন্তত এক ম্যাচ হলেও জিতেছে। এভাবে চলতে থাকলে অবনমন হবে নিউক্যাসল। ৩০ কোটি পাউন্ডের বেশি বিনিয়োগ করে একটি ক্লাব কেনার পর এমন ভাগ্য কে মানতে চায়। তাই নতুন মৌসুমের জন্য অপেক্ষা না করে আসছে জানুয়ারিতেই দলবদলে বড় অঙ্ক খরচ করবে নিউক্যাসল।

চেলসি ও লিভারপুলে খেলা সাবেক মিডফিল্ডার জো কোলের অন্তত এমনটাই ধারণা। আমাজন প্রাইম ভিডিওকে বলেছেন, ‘ওরা জানুয়ারিতে ২০ থেকে ৩০ কোটি পাউন্ড খরচ করবে। তারা এখানে মজা করতে আসেনি। আমাদের দেখা সবচেয়ে ধনী মালিক ওরা, এবং আমার ধারণা জানুয়ারিতে ওরা টাকা ওড়াবে। আমার ধারণা চার বা পাঁচটা খেলোয়াড় দলে ঢুকবে। একবার একটা জয় পেলে এবং থিতু হলেই ওরা খেলা শুরু করবে।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন