বেনজেমার শেষ যোগ করা সময়ের গোলে এলচকে হারিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ।
বেনজেমার শেষ যোগ করা সময়ের গোলে এলচকে হারিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। ছবি: এএফপি

করিম বেনজেমার শেষ মুহূর্তের গোলে গত সপ্তাহে আতলেতিকোর বিপক্ষে হার এড়িয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। ফরাসি স্ট্রাইকার আজও ত্রাতা হলেন লা লিগার সবচেয়ে সফল দলটির। আজ এলচের বিপক্ষে বেনজেমার যোগ করা সময়ের গোলেই পুরো ৩ পয়েন্ট পেয়েছে রিয়াল। জোড়া গোল পেয়েছেন বেনজেমা, পিছিয়ে পড়েও ঘরের মাঠে রিয়াল ম্যাচটি জিতেছে ২-১ গোলে।

৬১ মিনিটে কালভো সানরোমানের গোলে এগিয়ে যায় এলচে। ৭৩ মিনিটে রিয়ালকে সমতায় ফেরান বেনজেমা। বেনজেমা জয়সূচক গোলটি করেছেন যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে। লিগে টানা দুই ড্রয়ের পর জিতল রিয়াল। এই জয়ে ২৭ ম্যাচে ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে বার্সেলোনাকে টপকে পয়েন্ট তালিকার দুইয়ে উঠে এল জিনেদিন জিদানের দল। লিগের শীর্ষ দল আতলেতিকোর চেয়ে ৫ পয়েন্ট পিছিয়ে রিয়াল। আজ রাতে হেতাফকে হারালে অবশ্য ব্যবধানটা ৮-এ নিয়ে যাবে দিয়েগো সিমিওনের দল।

বিজ্ঞাপন

৬১ মিনিটে গোল খাওয়ার পর রিয়াল কোচ বদলি হিসেবে একই সঙ্গে মাঠে নামিয়ে দেন টনি ক্রুস ও লুকা মদরিচকে। দুই অভিজ্ঞ মিডফিল্ডার মাঠে নামতেই বদলে যায় রিয়ালের ভাগ্য। ৭৩ মিনিটে বেনজেমার প্রথম গোলে অবদান আছে দুজনেরই। ক্রুসের শর্ট কর্নার থেকে বল পেয়ে বেনজেমাকে গোল বানিয়ে দেন মদরিচ। বেনজেমাকে শুধু কষ্ট করে একটু লাফিয়ে হেড করতে হয়েছে। দ্বিতীয় গোলটি অবশ্য দারুণ করেছেন ৩৩ বছর বয়সী স্ট্রাইকার । পেনাল্টি বক্সের সামান্য ভেতরে থেকে শূন্যে বল ধরে দূরের পোস্টে জড়িয়ে দেন বেনজেমা।

default-image

ম্যাচশেষে নিজের দ্বিতীয় গোলটির কথা আলাদাভাবেই বললেন বেনজেমা, ‘খুব সুন্দর গোল এটি। আমাদের ৩ পয়েন্টও এনে দিয়েছে গোলটি। বলতেই হয় আমি যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি সুখী।’

সুখী বেনজেমারা এই ম্যাচে পেয়েছেন নিয়মিত অধিনায়ক সের্হিও রামোসকে। রিয়ালের রক্ষণভাগের মূল স্তম্ভ গত জানুয়ারির পর এই প্রথম মাঠে ফিরলেন। হাঁটুর চোটে ভোগা রামোস অবশ্য পুরো সময় খেলতে পারেননি। ম্যাচের ৬১ মিনিটে তাঁকে উঠিয়ে কোচ জিদান মাঠেন নামান রদ্রিগোকে। আজ বদলি হিসেবে মাঠে নেমেছেন চোটের সঙ্গে লড়াই করা আরেক তারকা এদেন হ্যাজার্ডও।

default-image
বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন