টানা দুই ম্যাচ জয়ের উল্লাস আবাহনীর খেলোয়াড়দের
টানা দুই ম্যাচ জয়ের উল্লাস আবাহনীর খেলোয়াড়দেরছবি: প্রথম আলো

আবাহনীর গ্যালারিতে এমন উন্মাদনা কমই চোখে পড়ে। আজ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে একটু পরপর মিছিল হয়েছে আবাহনীর গ্যালারিতে। ম্যাচ শেষে খেলোয়াড়েরা যখন গ্যালারির সামনে দর্শকদের অভিনন্দনের জবাব দিচ্ছিলেন, তখন তো তাঁদের উন্মাদনা বেড়ে যায় দ্বিগুণ।

আবাহনীর ডিফেন্ডার মাসিহ সাইঘানি কুর্নিশের ভঙ্গিতে অভিনন্দনের জবাব দিলেন। সমর্থকদের হাততালি আর উল্লাসের মাত্রা আরও বাড়ল। আবাহনীর এত আনন্দের কারণ একটাই—পরপর দুই ম্যাচ জিতেছে প্রিমিয়ার লিগে ছয়বারের চ্যাম্পিয়নরা।

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে আজ আবাহনী ২-০ গোলে হারিয়েছে সাইফ স্পোর্টিংকে। একটি করে গোল করেছেন ব্রাজিলিয়ান রাফায়েল অগাস্টো সান্টোস ডা সিলভা ও হাইতির কারভেন্স বেলফোর্ট।

৯ ম্যাচে ৬ জয়, ৩ ড্রয়ে ২১ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুইয়ে আবাহনী। সমান ম্যাচে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে যথারীতি শীর্ষে বসুন্ধরা কিংস। লিগে সাইফের এটা তৃতীয় হার। ৮ ম্যাচে ৪ জয়, ১ ড্র ও ৩ হারে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের পঞ্চম স্থানে সাইফ।

বিজ্ঞাপন

চোট যে আবাহনীকে ভালোই ভোগাচ্ছে, তা মাঠে ফুটবলারদের দেখেই বোঝা গেছে। কাল পায়ে টেপ পেঁচিয়ে খেলতে দেখা গেল সাদ উদ্দিন, কারভেন্স বেলফোর্ট, রায়হান হাসানকে।

ফরোয়ার্ড নাবিব নেওয়াজ গত ৮ ম্যাচেই দর্শক। লিগের প্রথম ম্যাচে পুলিশের বিপক্ষে খেলার পরদিন অনুশীলনে চোট পেয়েছিলেন নাবিব। কবে মাঠে নামবেন, তা অনিশ্চিত। আজ এমআরআই করিয়েছেন, কাল রিপোর্ট পাওয়ার পর জানা যাবে, আদৌ অস্ত্রোপচার লাগবে কি না পায়ে।

default-image

মিডফিল্ডার জুয়েল রানা শেখ জামালের বিপক্ষে ম্যাচে লাল কার্ড দেখেছিলেন। শাস্তি শেষে আজ মাঠে ফিরেছেন জুয়েল রানা। ফ্রান্সেসকো তোরেস, বেলফোর্ট, জুয়েলদের অবশ্য গোলের জন্য বেশ লড়াই করতে হয়েছে।

প্রথম গোলটি পেতে আবাহনীকে অপেক্ষা করতে হয়েছে ৫২ মিনিট পর্যন্ত। তবে ২১ মিনিটে গোল করে এগিয়ে যেতে পারত সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব। ধারার বিপরীতে আক্রমণে ওঠে সাইফের আরিফুর রহমান। বক্সে ঢুকে দুর্দান্ত এক শট নিলেও ক্রসবারে লেগে বাইরে যায় বল।

প্রথমার্ধে বেশ কয়েকবার আক্রমণে উঠেছে আবাহনী। জুয়েল রানা বেশ কয়েকবার বক্সে ঢুকেছেন। কখনো ক্রস ফেলেছেন। কখনো নিজে সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি।

জুয়েলের ক্রসে বেলফোর্ট অন্তত দুটি নিশ্চিত গোল নষ্ট করেছেন। অবশেষে ম্যাচের ৫৩ মিনিটে রায়হানের লম্বা থ্রো থেকে হেডে রাফায়েল অগাস্টো এগিয়ে নেন আবাহনীকে।

গোল শোধে মরিয়া সাইফ স্পোর্টিংয়ের বেলজিয়ান কোচ পল পুট এরপরই বদলি হিসেবে নামান তরুণ তুর্কি সাজ্জাদ হোসাইনকে।

শাহেদুল আলমের বদলি হিসেবে মাঠে নেমেও অবশ্য ম্যাচের স্কোরে কোনো বদল আনতে পারেননি চট্টগ্রামের এই ফুটবলার। বরং ৬৫ মিনিটে আরেক দফা পিছিয়ে পড়ে সাইফ। ডান প্রান্ত থেকে জুয়েল রানার ক্রস, বেলফোর্টের শটে স্কোরলাইন ২-০।

default-image

সাইফের উজবেক মিডফিল্ডার সিরোজুদ্দিন রাখমাতুল্লায়েভকে বেশ নিষ্প্রভ মনে হয়েছে মাঠে। ফরোয়ার্ডদেরও গত ম্যাচগুলোর মতো সেভাবে গোলমুখে বল রাখতে দেখা যায়নি।

বরং দ্বিতীয় গোল খেয়ে ফরোয়ার্ড আরিফুর রহমানের বদলি হিসেবে তরুণ ফয়সাল আহমেদকে নামিয়েছেন সাইফ কোচ পল পুট। কিন্তু এরপরও সাইফের কোনো আক্রমণ আর কাজে আসেনি।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন