নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড ইকেচু কেনেথের জোড়া গোলের রাতে একটি করে গোল করেন ইয়াছিন আরাফাত, আরিফুর রহমান, মেরাজ হোসেন ও সাজ্জাদ হোসেন। প্রথমার্ধে দুই গোলের পর দ্বিতীয়ার্ধে হয়েছে ৪ গোল।

২০ মিনিটে গোলের খাতা খুলেছেন কেনেথ। স্বদেশি মিডফিল্ডার জন ওকোলির থ্রু পাস ধরে বক্সে ঢুকে গোলরক্ষককে বোকা বানিয়ে দূরের পোস্ট দিয়ে জালে পাঠিয়েছেন কেনেথ।

তাঁর দ্বিতীয় ও দলীয় চতুর্থ গোলটি ৬৪ মিনিটে। কেনেথের জোড়া গোলের মাঝে একটি করে গোল করেছেন ইয়াছিন ও আরিফুর। ৩৬তম মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে ফ্রি–কিকে গোল ইয়াছিনের। বল জালে জড়ানোর আগে রক্ষণদেয়ালে লেগেছিল।

default-image

আরিফুরের গোলটি ৪৯ মিনিটে। কেনেথের ক্রসে গোলটি করেন জাতীয় দলের এই উইঙ্গার। শেষ দুটি গোল বদলি মেরাজ ও সাজ্জাদের। ৭৭ মিনিটে আরিফুরের পাস থেকে ৫–০ করেন মেরাজ।

তিন মিনিট পরেই আরিফুর আবার গোল করান সাজ্জাদকে দিয়ে। যোগ করা সময়ে ব্রাদার্সকে স্পট কিক থেকে সান্ত্বনাসূচক গোল এনে দেন কঙ্গোর ফরোয়ার্ড সিও জুনাপিও।

উত্তর বারিধারা ৩–২ আরামবাগ

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ‘বি’ গ্রুপে দিনের প্রথম ম্যাচে রোমাঞ্চ ছড়িয়েছে। মোট ৫ গোলের ম্যাচে শেষ পর্যন্ত ৩–২ গোলে আরামবাগ ক্রীড়াসংঘের বিপক্ষে জয় পেয়েছে উত্তর বারিধারা।

default-image

জয়ী দলের হয়ে একটি করে গোল করেছেন সুমন রেজা, সুজন বিশ্বাস ও মোস্তফা আব্দেল খালেক। আরামবাগের গোল দুটি সিজোবা ক্রিস্টোফার ও নিহাত জামানের। সমান দুই ম্যাচ খেলে আরামবাগ ও বারিধারার পয়েন্ট সমান ৩।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন