default-image

আগের দিন ভিয়ারিয়ালকে হারিয়ে লিভারপুল এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে উঠেছে। গতকাল ম্যান সিটিকে হারিয়ে রিয়াল মাদ্রিদ। আগামী ২৮ মে প্যারিসে ফাইনাল।

তা লিভারপুল ফাইনালে ওঠার পরই পরশু সালাহকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, ফাইনালে কোন দলকে চান? সাধারণত খেলোয়াড়েরা এ ধরনের প্রশ্নে কোনো দলের নাম নির্দিষ্ট করে বলতে চান না, কিন্তু সালাহ ব্যতিক্রম।

পরশু প্রশ্নটার উত্তরে বললেন, ‘আমি মাদ্রিদের বিপক্ষে খেলতে চাই। সত্যি বলতে, ম্যানচেস্টার সিটি খুব শক্ত দল। এ মৌসুমে তাদের বিপক্ষে কয়েকটি ম্যাচ খেলেছি। তবে আমার ব্যক্তিগত ইচ্ছা জানতে চাইলে বলব, রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হতে চাই।’

default-image

কেন, সেটি বুঝতে অবশ্য বেশি দূর পেছাতে হয় না। ২০১৮ চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালেই দুই দল মুখোমুখি হয়েছিল। সেদিন রিয়ালের ৩-১ গোলের জয়ে লিভারপুল গোলকিপার লরিস কারিয়াসের দুই ভয়ংকর ভুলের পাশাপাশি বড় ছবি হয়ে ছিল ম্যাচের ১৮ মিনিটেই রিয়াল ডিফেন্ডার সের্হিও রামোসের কড়া ট্যাকলে সালাহর কাঁধে চোট পাওয়া।

ওই মৌসুমে লিভারপুলে যোগ দেওয়ার পর থেকেই অবিশ্বাস্য ছন্দে থাকা সালাহ ওই চোটে একে তো নিজের প্রথম চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল খেলতে পারেননি, তারওপর কদিন পর শুরু হতে যাওয়া বিশ্বকাপেও মিশরের জার্সিতে সালাহর খেলা সংশয়ে পড়ে যায়। দুই মিলিয়েই কিনা, কান্নায় মাঠ ছাড়েন সালাহ।

default-image

সে কারণেই কিনা, কাল রিয়ালকে ফাইনালে চাওয়ার কারণ হিসেবে সালাহ বলেছেন, ‘আমরা ফাইনালে হেরেছিলাম। তাই তাদের মুখোমুখি হয়ে জিততে চাই।’

রিয়ালকেই ফাইনালে পাওয়ার পর কাল ইনস্টাগ্রাম-টুইটারে সালাহর পোস্ট, ‘আমাদের কিছু হিসাব-নিকাশ বাকি আছে।’

এবার অবশ্য একটা দিকে সালাহ ছাড় পাচ্ছেন - রামোস যে এখন আর রিয়ালে নেই!

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন