লিগ কাপের ফাইনালে রোববার চেলসির মুখোমুখি হবে ক্লপের দল। তার আগে বড় জয়ে প্রস্তুতিটা সেরে রাখলেন জার্মান কোচ। অ্যানফিল্ডে মার্সেলো বিয়েলসার দলকে পাত্তাই দেননি মোহাম্মদ সালাহ ও সাদিও মানেরা।

জোড়া গোল করেন লিভারপুল আক্রমণভাগের দুই তারকা। একটি গোল বানিয়েও দেন সালাহ। অন্য দুটি গোল জোয়েল মাতিপ ও ভার্জিল ফন ডাইকের। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে আফ্রিকান খেলোয়াড়দের মধ্যে এখন গোলে সর্বোচ্চ অবদানের রেকর্ড সালাহর (১৬০)। চেলসির সাবেক স্ট্রাইকার দিদিয়ের দ্রগবার (১৫৯) রেকর্ড ভাঙলেন তিনি।

default-image

আইভরি কোস্ট কিংবদন্তির চেয়ে ৭২ ম্যাচ কম খেলেই রেকর্ডটি গড়লেন সালাহ।
ম্যাচের ৩৫ মিনিটের মধ্যে ৩-০ গোলে এগিয়ে যায় লিভারপুল। ১৫ ও ৩৫ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করেন সালাহ। ৩০ মিনিটে সালাহর পাস থেকে ২০২০ সালের ডিসেম্বরের পর নিজের প্রথম গোল পান মাতিপ।

ম্যাচের শেষ ১৩ মিনিটে আরও ৩ গোল করে লিভারপুল। ৮০ ও ৯০ মিনিটে মানের গোলের পর যোগ করা সময়ের ৩ মিনিটে শেষ গোলটি ফন ডাইকের।

এপ্রিলে সিটির মুখোমুখি হবে লিভারপুল। তার আগে পয়েন্ট ব্যবধান কমিয়ে খানিকটা হলেও স্বস্তিতে রইল ক্লপের দল। তবে লিভারপুলের এই কোচ মনে করেন লিভারপুল পরের ম্যাচটা খেলার আগেই সিটি নিজেদের ম্যাচটা জিতে ৬ পয়েন্ট ব্যবধানে এগিয়ে যাবে, ‘সত্যি বলতে আমরা সিটির পিছু ছুটছি না। শুধু ম্যাচগুলো জেতার চেষ্টা করছি। আমরা লিগে পরের ম্যাচটা খেলার আগেই সিটি হয়তো ৬ পয়েন্ট ব্যবধানে এগিয়ে যাবে।’

২৬ ম্যাচে ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে সিটি। সমান ম্যাচে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে লিভারপুল।

default-image

লিডসের অবস্থা এদিকে সঙিন। প্রিমিয়ার লিগে এ মৌসুমে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি গোল হজম করল লিডস (৫৬)। রক্ষণ নিয়ে সেভাবে না ভাবায় মাঝে-মধ্যেই বড় ব্যবধানে হারের মুখ দেখে লিডস। গত ডিসেম্বরে সিটির কাছে ৭-০ গোলে হারা লিডস নিজেদের শেষ চার ম্যাচে হজম করেছে ১৬ গোল।

২৫ ম্যাচে ১৫তম লিডস অবনমন এড়ানোর লড়াই করছে বলে মনে করেন কোচ বিয়েলসা, ‘আমরা অবনমন এড়ানোর লড়াই করছি। অবশ্যই এটা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছি। সিটির বিপক্ষে ম্যাচটা এবং আজকের ম্যাচ প্রমাণ করে দিল অপেক্ষাকৃত শক্তিশালী দলের বিপক্ষে আমরা কতটা দুর্বল।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন