বিজ্ঞাপন

সিটি সমর্থকদের ফাইনাল দেখা প্রসঙ্গে আজ ক্লাবের ওয়েবসাইটে এক বিবৃতিতে জানানো হয় বিষয়টি, ‘পোর্তোয় চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল দেখতে অফিশিয়াল এই ভ্রমণে ফ্লাইট (বিমানপথে) এবং যাতায়তের খরচ বহন করবেন শেখ মনসুর—ঘোষণা করছে ম্যানচেস্টার সিটি।’

সংবাদমাধ্যমকে শেখ মনসুর বলেন, ‘পেপ এবং তার দল অসাধারণ এক মৌসুম কাটিয়েছে। চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল ক্লাবটির জন্য ঐতিহাসিক এক মুহূর্ত। এই বিশেষ ম্যাচে গ্যালারিতে ভক্তদের থাকাটা গুরুত্বপূর্ণ, বিশেষ করে যাঁরা সিটির ভালো ও খারাপ সময়ে সমর্থন দিয়েছেন।’

সিটি চেয়ারম্যান খালদুন আল মুবারক বলেন, ‘এই উদ্যোগে আশা করি ভক্তরা এই মহামারির মধ্যে যাতায়াত খরচের ভাবনা ভুলে ম্যাচটা নিশ্চিন্তে দেখতে পারবেন।’

পর্তুগাল করোনা মহামারি নিয়ে ভীষণ সতর্ক। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ‘ম্যানচেস্টার ইভিনিং নিউজ’ জানিয়েছে, ম্যানচেস্টার থেকে সিটি সমর্থকদের পর্তুগালে গিয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ফেরত আসতে হবে। এই অল্প সময়ের মধ্যে যাতায়াতের খরচ স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশি।

এসব ভেবেই ৬ হাজার সমর্থকদের সবার জন্য একটি করে ‘ভ্রমণ প্যাকেজ’ ঠিক করেছে সিটি। বিমান টিকিট এবং ভ্রমণের অন্যান্য বিষয়াদি নিয়ে পরে ক্লাবটির পক্ষ থেকে আরও বিশদভাবে জানানো হবে। তবে ফাইনাল দেখতে সমর্থকসংখ্যা বেঁধে দেওয়ার সময় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ফেরত আসার বিষয়টি জানায়নি উয়েফা।

ইংল্যান্ডের তালিকায় করোনা মহামারিতে পর্তুগাল ‘নিরাপদ’ অবস্থানে থাকায় দেশটি ঘুরে এসে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে কোনো দলের খেলোয়াড় থেকে সমর্থকদের। ম্যানচেস্টার থেকে পোর্তায় বিমানপথে ৬ হাজার সমর্থকের যাওয়া–আসা খরচ বাবদ প্রায় ২৪ কোটি টাকা গুনতে হবে শেখ মনসুরকে।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন