বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

লিগ কাপে সাধারণত দ্বিতীয় সারির দল খেলায়ে বড় দলগুলো। এবারের মৌসুমে ওয়েস্ট হাম যে ছন্দে আছে, তাদের বিপক্ষে শেষ ষোলোতে দ্বিতীয় সারির দল নামানোর সাহস দেখাননি পেপ গার্দিওলা। মূল গোলরক্ষক এদেরসন ও ফরোয়ার্ড জেসুসকে ছাড়া প্রায় মূল একাদশই নামিয়েছিলেন তিনি। পরে বদলি হিসেবে নেমেছিলেন জেসুসও। প্রতিপক্ষের মাঠে দাপটের সঙ্গেই খেলেছেন স্টার্লিং, মাহরেজ, ডি ব্রুইনারা। ৬৫ শতাংশ বল দখল ছিল তাঁদের পায়ে। পোস্টে শটও ছিল সাতটি। কিন্তু গোলমুখ আর খুলতে পারেননি গার্দিওলার শিষ্যরা। দুর্দান্ত খেলেছেন ওয়েস্ট হাম গোলরক্ষক আলফনসো আরিওলার

default-image

নকআউট পদ্ধতির লিগ কাপে ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। স্নায়ুর লড়াইয়ে নিজেদের মাঠে উতরে যায় ওয়েস্ট হাম। ওয়েস্ট হামের হয়ে প্রথম শট নিয়ে বল জালে জড়ান মার্ক নোবেল। সিটির প্রথম শটে জালে জড়াতে ব্যর্থ হন ম্যান সিটির বদলি খেলোয়াড় ফিল ফোডেন। পরের তিনটি শটে জোয়াও ক্যানসেলো, গ্যাব্রিয়েল জেসুস ও জ্যাক গ্রিলিশ ভুল করেননি। কিন্তু ওয়েস্ট হামের হয়ে বাকি শটগুলোতেও সফল জ্যারড বাওয়েন, ক্রেইগ ডওসন, অ্যারন ক্রেসওয়েল ও সাইদ বানরাহমা।

default-image

কখনো লিগ কাপ জেতা হয়নি ওয়েস্ট হামের। এর আগে ১৯৬৫-৬৬ ও ১৯৮০-৮১ মৌসুমে ফাইনাল খেলেও হেরেছে তারা। তবে এবার যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে তারা, ক্লাবটির সমর্থকেরা নতুন করে স্বপ্ন দেখতেই পারেন। এবারের মৌসুমে দুর্দান্ত খেলছে ওয়েস্ট হাম। এরই মধ্যে প্রিমিয়ার লিগে তারা হারিয়েছে টটেনহাম ও এভারটনকে। ৯ ম্যাচে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের চারে অবস্থান করছে তারা। ইউরোপা লিগেও ৩ ম্যাচ খেলে ৩ জয়ে নিজেদের গ্রুপে শীর্ষে। অন্যদিকে ২০ পয়েন্ট নিয়ে প্রিমিয়ার লিগে তৃতীয় স্থানে ম্যান সিটি।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন