বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এত কিছু বলার পরও হালের সেনসেশন আর্লিং হরলান্ডকে নিয়ে তেমন কিছুই বলতে রাজি হননি বার্সেলোনার সভাপতি। একরকম মুখে কুলুপই এঁটে বসেছিলেন যেন। বাতাসে গুঞ্জন, আগামী দলবদলে হরলান্ডকে দলে নেবে বার্সেলোনা।

যদিও হরলান্ডের দলবদলের সম্ভাবনা নিয়ে সেদিন লাপোর্তা কথা বলেছিলেন অনেক ঘুরিয়ে-পেঁচিয়ে, ‘আমি কোনো নির্দিষ্ট নাম নিয়ে কথা বলব না। এটা কোনো কাজে আসবে না। এটা তাদের দাম বাড়িয়ে দেয়। যেকোনো কিছুই সম্ভব। আমরা বাজারে ঢুকেছি এবং অপেক্ষা করছি। বার্সেলোনা একটা লক্ষ্যের নাম। সব খেলোয়াড়ই বার্সেলোনায় আসার কথা ভাবেন।’

লাপোর্তা ঘুরিয়ে–পেঁচিয়ে কথা বললেও তাঁর নির্বাচনী প্রচারণাবিষয়ক ব্যবস্থাপক লুইস কারাসকো অত কিছুর ধার ধারেননি। সরাসরি বলে দিয়েছেন, হরলান্ড বার্সেলোনাতেই আসছেন। যে নির্বাচনে জিতে লাপোর্তা দ্বিতীয়বারের মতো বার্সেলোনার সভাপতি হয়েছেন, সে নির্বাচনে লাপোর্তার প্রচারণাবিষয়ক ব্যবস্থাপকের ভূমিকা পালন করেছিলেন এই কারাসকো। একটু হলেও বার্সার হাঁড়ির খবর জানবেন, এটাই স্বাভাবিক।

সাংবাদিক জেরার্দ রোমেরোর ‘এল জিজান্তেস’ নামের অনুষ্ঠানে বার্সেলোনা সমর্থকদের বেশ আশা দিয়েই কথা বলেছেন কারাসকো, ‘হরলান্ড বার্সেলোনাতেই আসছে। আমি জানি, আমাদের সভাপতি হরলান্ডকে ভালোবাসেন। তিনি জানেন, হরলান্ড আমাদের দলের মূল খেলোয়াড় হওয়ার যোগ্যতা রাখেন, আমাদের প্রকল্পের কেন্দ্রবিন্দুর ভূমিকা পালন করতে পারেন। ইউরোপীয় ফুটবলে শাসন করার ক্ষমতা আছে তাঁর।’

default-image

তবে বার্সেলোনার পাশাপাশি রিয়াল মাদ্রিদও যে হরলান্ডকে পাওয়ার দৌড়ে আছেন, সেটা কারাসকো বেশ ভালোই জানেন।

তবে তাঁর মতে, রিয়ালে হাজারো তারার ভিড়ে হারানোর সম্ভাবনা আছে হরলান্ডের, যা বার্সায় নেই, ‘ও এখানে সবচেয়ে বড় তারকার মর্যাদা নিয়েই আসবে। রিয়াল মাদ্রিদে গেলে যে মর্যাদাটা সে পাবে না।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন