default-image

একসময় ভাব ছিল গলায়-গলায়, কিন্তু এখন মুখ দেখাদেখিও বন্ধ। এমনকি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও আর কেউ কাউকে অনুসরণ করেন না। গত ভালোবাসা দিবস আসার আগেই প্রিয়তমার সঙ্গে ভালোবাসার লেনাদেনা চুকিয়ে ফেলেছেন ইংল্যান্ড ও টটেনহাম হটস্পার্সের মিডফিল্ডার ডেলে আলী। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ভালোবাসার জুটি থেকে দুজনের সম্পর্ক এখন আদায় কাঁচকলায় গিয়ে ঠেকেছে।

এমন হওয়ার কারণ? সেটাও অবিশ্বাস্য। অনলাইন ভিডিও গেম—ফোর্টনাইট। ট্যাবলয়েড সান ও মেইল অনলাইন একযোগে জানিয়েছে, মাঠের বাইরে এই ভিডিও গেমে খুব বেশি সময় কাটান ডেলে আলী। তাঁর মডেল প্রেমিকা রুবি মায়ের নাকি তা সহ্য হয়নি। ভিডিও গেম ছাড়াও আরও কিছু বিষয়ে দুজনের মধ্যে বনিবনা হচ্ছিল না দীর্ঘদিন ধরে। কুৎসিত বচসাও হয়েছে কয়েকবার। শেষ পর্যন্ত দীর্ঘ পাঁচ বছরের সম্পর্ক চুকিয়ে টটেনহাম তারকার ২০ লাখ পাউন্ড দামের বাড়ি ছেড়ে গেছেন ২৫ বছর বয়সী রুবি।

বিজ্ঞাপন
default-image

রুবির বন্ধুরা ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘ভীষণ রাগ করে’ টটেনহাম তারকার সঙ্গে সম্পর্ক চুকিয়েছেন তিনি। ‘ফোর্টনাইট গেমে অনেক বেশি সময় কাটানো’ও এর কারণ বলে জানিয়েছেন রুবির বন্ধুরা। তাঁদেরই এক বন্ধুর উদ্ধৃতি, ‘ডেলে ও রুবির সম্পর্ক শেষ। অনেক দিন ধরেই ঝামেলা চলছিল। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে সব শেষ। রুবি কষ্ট পেলেও ধকল কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছে। ডেলের ব্যবহার সে অনেক সহ্য করেছে, বাক্সপেটরা গুছিয়ে বাড়ি ছেড়েছে।’

ফরাসি ফ্যাশন হাউস শ্যানেল ও ইতালিয়ান ফ্যাশন হাউস ডলচে অ্যান্ড গ্যাবানার মডেল রুবি। ২০১৬ সালে দুজন সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। দুই বছর পর খানিক বিচ্ছেদ ঘটলেও দুজনে আবার জুটি বেঁধেছিলেন।

default-image

মরিসিও পচেত্তিনো টটেনহামের কোচ থাকতে দিনগুলো ভালোই কাটছিল ডেলে আলীর। দলের একাদশে নিয়মিত জায়গা পেতেন, ফর্মও ছিল ভালোই। কিন্তু জোসে মরিনিও কোচ হয়ে আসার পর ধীরে ধীরে দলে জায়গা হারাতে শুরু করেন তিনি। গত দলবদলের মৌসুমে তো প্রায় চলেই যেতে বসেছিলেন। তবে বুধবার ইউরোপা লিগে টটেনহামের ৪-০ গোলের জয়ে একটি গোল ও দুটি গোল বানিয়ে আবারও আলোচনায় উঠে আসেন ২৪ বছর বয়সী এ ফরোয়ার্ড। ‘সে খুব ভালো খেলেছে’ বলে আলীকে একাদশে নিয়মিত করার ইঙ্গিতও দিয়েছেন মরিনিও।

তবে মাঠে ভালো সময় ফিরে আসার ইঙ্গিত থাকলেও ব্যক্তিগত জীবনে রুবির বিরহ অনুভব করার কথা ডেলে আলীর। রুবি সঙ্গে থাকতেই গত বছর ছুরির মুখে নিজের ঘরেই ডাকাতির শিকার হন সপ্তাহে দেড় লাখ পাউন্ড পারিশ্রমিক পাওয়া ইংল্যান্ড তারকা। দুজনে পুল খেলার সময় দুষ্কৃতকারীরা ছুরির মুখে ডাকাতি করে নিয়ে যায়। দামি ঘড়ি ও স্বর্ণালংকার খোয়া যায় তাঁদের। করোনা মহামারির মধ্যে বাসায় কোয়ারেন্টিনে থাকতে এ ঘটনার স্বীকার হয়েছিলেন ডেলে আলী।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন