বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

ঘুরেফিরে এবার এই নামগুলোই আলোচনায়। আলোচনাটা কিসের, তা এতক্ষণ পর নিশ্চয়ই আর বলতে হয় না! কিসের আবার, এবারের ব্যালন ডি’অর কে জিততে পারেন সেটির। আলোচনা-বিতর্ক করার জন্য আরও ৬৬ দিন সময় পাওয়া যাচ্ছে। আগামী ২৯ নভেম্বর যে প্যারিসে সোনার বলটা তুলে দেওয়া হবে এবারের ব্যালন ডি’অরজয়ীর হাতে।

তার আগে ৮ অক্টোবর ঘোষণা করা হবে চূড়ান্ত মনোনয়ন পাওয়া ফুটবলারদের নাম। বর্ষসেরা ফুটবলার নির্ধারণী দুই পুরস্কারের একটি এই ব্যালন ডি’অরের (অন্যটি ফিফা দ্য বেস্ট) আয়োজক ফ্রান্স ফুটবল ম্যাগাজিন আজ এই ঘোষণা দিয়েছে।

করোনা মহামারিতে অনেক দেশের লিগ শেষ না হওয়ায় গত মৌসুমে ব্যালন ডি’অর দেওয়া হয়নি। এক বছর বিরতি দিয়ে আবার তাই ফিরছে ১৯৫৬ সালে শুরু হওয়া এই পুরস্কার।

default-image

৬৫তম বারের মতো এই আয়োজনটি হবে প্যারিসের তিয়েখ দু শাতেলে-তে। ২০১৯ সালেও এখানেই ব্যালন ডি’অরের পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল। সেবার ছেলেদের বিভাগে ব্যালন ডি’অর জিতেছিলেন লিওনেল মেসি, মেয়েদের বিভাগে মেগান রাপিনো। ২০১৮ সাল থেকে মেয়েদের বিভাগেও এই পুরস্কার দেওয়া শুরু করে ফ্রান্স ফুটবল ম্যাগাজিন।

ছেলেদের ও মেয়েদের বিভাগের বর্ষসেরার পাশাপাশি সেদিন পুরস্কার দেওয়া হবে লেভ ইয়াসিন ট্রফি (বর্ষসেরা গোলকিপার) ও রেমন্ড কোপা ট্রফিরও (২১ বছর বা তার কম বয়সী তরুণ খেলোয়াড়দের মধ্যে বর্ষসেরা)। এই দুটি পুরস্কারের জন্যও চূড়ান্ত মনোনীতদের তালিকা দেওয়া হবে ৮ অক্টোবর।

default-image

ছেলেদের ব্যালন ডি’অরের ক্ষেত্রে বিভিন্ন দেশের ১৮০ জন সাংবাদিকের ভোটে নির্ধারিত হবে চূড়ান্ত মনোনীত ৩০ জনের নাম। মেয়েদের ফুটবলের ক্ষেত্রে চূড়ান্ত মনোনয়ন পাওয়া ২০ জন নির্ধারণ করবেন মেয়েদের ফুটবল নিয়ে বিশেষভাবে কাজ করা ৫০ জন সাংবাদিক।

ইয়াসিন ট্রফির জন্য ১০ জন চূড়ান্ত মনোনীত নির্ধারণ করবেন ছেলেদের বর্ষসেরা নির্ধারণের দায়িত্ব পাওয়া ১৮০ সাংবাদিক। আর কোপা ট্রফির জন্য মনোনীত ১০ জনের নাম ঠিক হবে ফ্রান্স ফুটবল ম্যাগাজিনের বেছে নেওয়া সাবেক ব্যালন ডি’অরজয়ী ৩২ জনের ভোটে।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন