এ সময় বড় হার এড়ানো প্রসঙ্গে মজা করে আর্সেনালের সাবেক কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গারের প্রসঙ্গও টেনে এনেছেন ক্লপ। নিজের হাজারতম ম্যাচে ওয়েঙ্গার যে ৬-০ গোলের বড় হার দেখেছিলেন, সেটিও মনে করিয়ে দেন লিভারপুল কোচ।

অ্যানফিল্ডের ম্যাচটিতে মিডফিল্ডে দুর্বলতার কারণে ভুগেছে দুই দলই। তবে লিভারপুলের চেয়ে চেলসি এদিন কিছুটা এগিয়েই ছিল। ম্যাচের নিয়ন্ত্রণও চেলসির হাতে ছিল বেশি। দুই দলের খেলা তুলনা করে ক্লপ বলেছেন, ‘চেলসি যেভাবে নিজেদের খেলাটা খেলেছে, আমরা সেভাবে পারিনি।’

তবে ১০০০তম ম্যাচে না হারায় কিছুটা হাঁপ ছেড়েই যেন বেঁচেছেন ক্লপ। এ সময় ওয়েঙ্গারকে মনে করিয়ে দিয়ে মজা করে এই জার্মান কোচ বলেছেন, ‘সেই ম্যাচে (১০০০তম) ওয়েঙ্গার ৬-০ গোলে হেরেছিল। তাই আমি খুশি যে ফলটা ০-০ হয়েছে।’

তবে এই ম্যাচে ড্র করেও বিপদ এড়াতে পারছে না লিভারপুল। ১৯ ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ৮ নম্বরে অবস্থান করছে ‘অল রেড’রা। আর এক ম্যাচ বেশি খেলে সমান পয়েন্ট নিয়ে ১০ নম্বরে আছে চেলসি। খুব দ্রুত ঘুরে দাঁড়াতে না পারলে সেরা চারে থেকে চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলা একরকম অনিশ্চিত হয়ে পড়বে।

প্রিমিয়ার লিগে লিভারপুল নিজেদের পরের ম্যাচ খেলবে ৪ ফেব্রুয়ারি উলভসের বিপক্ষে। একই দিন চেলসির প্রতিপক্ষ ফুলহাম।