বিশ্বকাপের জন্য তিন সপ্তাহ সময় হাতে আছে দক্ষিণ কোরিয়ার। এশিয়ান পরাশক্তি বিশ্বকাপ অভিযান শুরু হবে ২৪ নভেম্বর উরুগুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে। ‘এইচ’ গ্রুপে সন অপর দুই প্রতিপক্ষ ঘানা ও পর্তুগাল। সর্বশেষ দুই বিশ্বকাপে প্রথম রাউন্ড থেকে বাদ পড়া দক্ষিণ কোরিয়া এবার সনের ওপর ভর করে চূড়ান্ত পর্বের টিকিট কেটেছে। এশিয়ান বাছাইপর্বে ১৩ ম্যাচে ৭ গোল করেন সন।

বিশ্বকাপের জন্য যথাসময়ে সুস্থ হয়ে উঠলেও টটেনহামের কয়েকটি ম্যাচ নিশ্চিতভাবেই মিস করবেন তিনি। বিশ্বকাপের আগে প্রিমিয়ার লিগে লিভারপুল ও লিডস ইউনাইটেড এবং ক্যারাবাও কাপে নটিংহাম ফরেস্টের বিপক্ষে খেলবে টটেনহাম। এরই মধ্যে রিচার্লিসন ও দেয়ান কুলুসেভস্কিও চোটের কারণে মাঠের বাইরে আছেন।

সনের আগে চোটে পড়েছেন বেশ কয়েক ফুটবলার। এর মধ্যে ফ্রান্সের এনগোলো কান্তে, পল পগবা ও রাফায়েল ভারানের বিশ্বকাপ খেলার আশা শেষ। ইংল্যান্ডের হয়ে বিশ্বকাপ সম্ভাবনা শেষ হয়ে গেছে রাইট ব্যাক রিস জেমসেরও।

এ ছাড়া বেশ কয়েকজন আছেন সম্ভাবনা-শঙ্কার মাঝামাঝিতে। এর মধ্যে আছেন আর্জেন্টিনার পাওলো দিবালা। লিওনেল মেসির আরেক সতীর্থ আনহেল দি মারিয়াও এখন চোটের কারণে মাঠের বাইরে।

কাতারে বিশ্বকাপ শুরু হবে ২০ নভেম্বর। ১৩ নভেম্বরের মধ্যে ২৬ জনের চূড়ান্ত দল ঘোষণা করবেন কোচরা।