এবারের বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে ইউরোপীয় ফুটবল মৌসুমের মধ্যে। উয়েফার সঙ্গে ফিফার যে সমঝোতা, সে অনুযায়ী ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত ক্লাবগুলো খেলোয়াড় ধরে রাখতে পারবে। তবে আরব আমিরাতের বিপক্ষে ম্যাচ খেলাতে হলে ফুটবলারদের আরও আগে দরকার আর্জেন্টিনার। এ জন্য প্রিমিয়ার লিগের একটি ক্লাবের কাছে ১২–১৩ নভেম্বরের মধ্যে খেলোয়াড় ছেড়ে দেওয়ার অনুরোধ করেছে আর্জেন্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (এএফএ)। যুক্তরাজ্যের ডেইলি মেইল জানিয়েছে, ক্লাবটি এএফএর অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেছে।

ক্লাবটি অথবা খেলোয়াড়টির নাম প্রকাশ করা হয়নি। কাতার বিশ্বকাপের জন্য আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি ৪৯ সদস্যের যে প্রাথমিক দল ঘোষণা করেছেন, সেখানকার ৮ ফুটবলার খেলেন প্রিমিয়ার লিগে। এর মধ্যে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে আছেন লিসান্দ্রো মার্তিনেজ ও আলেহান্দ্রো গারাঞ্চো, অ্যাস্টন ভিলায় এমিলিয়ানো মার্তিনেজ ও এমিলিয়ানো বুয়েনদিয়া, টটেনহামে ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো, ব্রাইটনে অ্যালেক্সিস ম্যাক অ্যালিস্টার, ম্যানচেস্টার সিটিতে হুলিয়ান আলভারেজ এবং বোর্নমাউথে মার্কোস সেনেসি।

আটজনের ভেতর সবারই অবশ্য কাতারে যাওয়া নিশ্চিত নয়। ১৩ নভেম্বর আর্জেন্টিনার চূড়ান্ত দল নেমে আসবে ২৬ জনে। ডেইলি মেইল জানিয়েছে, এএফএর অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করা ক্লাবটি প্রিমিয়ার লিগের বাকি দলগুলোকেও বিষয়টি জানিয়েছে। কোনো ক্লাবই ১৪ নভেম্বরের আগে আর্জেন্টান ফুটবলারদের ছাড়বে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছে।

প্রিমিয়ার লিগের মতো লা লিগার ক্লাবগুলোতেও যোগাযোগ শুরু করেছে আর্জেন্টাইন এফএ। তাদের অনুরোধে সাড়া দিয়ে লো সেলসোকে ছাড়তে রাজি হয়েছে ভিয়ারিয়াল। অবশ্য টটেনহাম থেকে ধারে আসা এই মিডফিল্ডার এখন চোটে আছেন, বিশ্বকাপের আগে তাঁর সুস্থ হওয়া নিয়েই সংশয় আছে।

লা লিগায় আর্জেন্টিনার বেশি খেলোয়াড় আছেন আতলেতিকো মাদ্রিদ ও সেভিয়ায়। তবে লা লিগায় খারাপ সময় পার করা ক্লাব দুটি খেলোয়াড় না ছাড়ার সম্ভাবনা বেশি। আতলেতিকোর একটি সূত্র মেইলকে জানিয়েছে, এএফএর কাছ থেকে অনুরোধ এলে গ্রহণ করা হবে না।