২০০৯ সালে রিয়াদ মাদ্রিদে যোগ দিয়ে বিশ্বের অন্যতম সেরা ক্লাবটিতে ৯ মৌসুম কাটান রোনালদো। এ সময় ৪৩৮ ম্যাচে ৪৫০ গোল করেছেন এই পর্তুগিজ তারকা। ক্যারিয়ারের রোনালদো ব্যালন ডি’অর জিতেছেন পাঁচটি, যার চারটিই জিতেছেন রিয়াল মাদ্রিদে খেলার সময়। ব্যক্তিগত সাফল্যের সঙ্গে দলীয় সাফল্য এসেছে পাল্লা দিয়ে। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে জিতেছেন চারটি চ্যাম্পিয়নস লিগ।

রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে খেলা সর্বশেষ মৌসুমেও ইউরোপ–শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট জিতেছিল রিয়াল। রিয়ালের হয়ে খেলা সর্বশেষ তিন মৌসুমেই জিতেছেন চ্যাম্পিয়নস লিগ।

এত এত সাফল্যের পরও কেন রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে জুভেন্টাসে পাড়ি দিয়েছিলেন রোনালদো, এর ব্যাখ্যাও দিয়েছিলেন এই পর্তুগিজ তারকা, ‘সুবিধাজনক পরিস্থিতিতে থাকা খুব সহজ। আমি ঝুঁকি নিয়ে তুরিনে গিয়েছি। ক্লাব, চ্যাম্পিয়নশিপ, ফুটবল–সংস্কৃতি পরিবর্তন করেছি। আমি নিশ্চিত, এ কারণেই আমি ২০১৮ সালে ব্যালন ডি’অর জিততে পারিনি।’

এরপরই আসল বোমাটা ফাটিয়েছিলেন রোনালদো। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মেসিকে নিয়ে তিনি সেখানে বলেছিলেন, ‘২০১৯ সালে যদি মেসি ব্যালন ডি’অর জেতে তাহলে ফুটবল থেকে আমি অবসর নেব।’

২০১৯ সালে ব্যালন ডি’অর ওঠে মেসির হাতে। তবে ফুটবল থেকে অবসর নেননি সর্বকালের অন্যতম সেরা রোনালদো। জুভেন্টাস–অধ্যায় শেষ করে ফিরেছেন নিজের সাবেক ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। চলতি মৌসুমে নতুন কোচ এরিক টেন হাগের অধীনে প্রথম একাদশে জায়গা পেতেই লড়তে হচ্ছে পাঁচবারের ব্যালন ডি’অরজয়ী এ তারকাকে।