সেখানে বসে ছিলেন আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (এএফএ) সভাপতি ক্লদিও তাপিয়া। টিওয়াইসি স্পোর্টস জানিয়েছে, মেসির হাতের বুটজোড়া দেখে বেশ চমকেই যান এএফএ সভাপতি। নিজে পরখ করে দেখতে মেসির কাছে বুটজোড়া চেয়ে বসেন তাপিয়া। এ বুটজোড়ার পুরো নাম ‘দ্য অ্যাডিডাস এক্স মেসি ২০২২ ওয়ার্ল্ড কাপ স্পিডপোর্টাল’। মেসির জন্য বিশেষভাবে এই বুট বানানো হলেও একই ধরনের হাইপ লিজেন্ড বুট বিশ্বের আরও অনেক ফুটবলারই ব্যবহার করেন। কিন্তু সেসব বুটের কোনোটাতেই সোনালি রং নেই। এই রংটা শুধু মেসির বুটেই আছে। বুটের এক পাশে অ্যাডিডাসের চিরায়ত তিনটি কালো স্ট্রাইপ এবং অন্য পাশে সাদা ও নীল স্ট্রিপ রয়েছে। সাদা ও নীল স্ট্রিপ সম্ভবত আর্জেন্টিনার জাতীয় পতাকার রং মাথায় রেখেই জুড়ে দেওয়া হয়েছে।

মেসির বুটের তলাও সোনালি। বুটটি দৌড়ানোর জন্যও বিশেষভাবে প্রস্তুত করা। যেকোনো মুভমেন্টের সময় মেসি যেন পা হড়কে পড়ে না যান, সে জন্য গোড়ালিতে ‘অ্যান্টি স্লিপ প্রিন্ট’ দেওয়া হয়েছে। বুধবার আরব আমিরাতের বিপক্ষে বিশ্বকাপের আগে আর্জেন্টিনার শেষ প্রীতি ম্যাচে এই বুট পরে মেসির মাঠে নামার কথা। কাতার বিশ্বকাপে সি গ্রুপে আর্জেন্টিনার প্রতিদ্বন্দ্বী তিন দল সৌদি আরব, মেক্সিকো ও পোল্যান্ড। ২২ নভেম্বর লুসাইলে সৌদি আরবের মুখোমুখি হয়ে কাতার বিশ্বকাপ শুরু করবে আর্জেন্টিনা। এই ম্যাচেও বুটজোড়া ব্যবহার করবেন মেসি।