গ্রুপ ‘এ’

লিভারপুল ২-০ নাপোলি

লিডস ইউনাইটেডের কাছে গত শনিবার লিগে হেরে বসা লিভারপুল চ্যাম্পিয়নস লিগে নাপোলির জয়যাত্রা থামিয়েছে। অ্যানফিল্ডে ইতালিয়ান ক্লাবটির জালে গোল করেন মোহাম্মদ সালাহ ও দারউইন নুনিয়েজ। ৮৫ মিনিটে সালাহর গোলের পর যোগ করা সময়ের ৮ মিনিটে নুনিয়েজও গোল করেন। অন্তত চার গোল ব্যবধানে জিতলে এই গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন দল হতে পারত আগেই শেষ ষোলো নিশ্চিত করা লিভারপুল। ইয়ুর্গেন ক্লপের দল তেমন খেলতে পারেনি। তবে নাপোলিকে ঠিকই মৌসুমের প্রথম হারের তেতো স্বাদ উপহার দিতে পেরেছে ইংলিশ ক্লাবটি। গ্রুপ পর্বে এটা ছিল দুই দলেরই শেষ ম্যাচ।

জেনে রাখা ভালো : চ্যাম্পিয়নস লিগ ও ঘরোয়া লিগ মিলিয়ে অপরাজিত ছিল নাপোলি। হারে সেই ধারায় ছেদ পড়ল। সিরি আ পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষ দলটি ২১ ম্যাচ অপরাজিত থাকার পর প্রথম হারল।

রেঞ্জার্স ১-৩ আয়াক্স

শেষ ষোলোয় ওঠার দৌড় থেকে আগেই ছিটকে পড়েছে এই দুই দল। স্কটিশ ক্লাব রেঞ্জার্সের সামনে ছিল প্রথম পয়েন্ট অর্জনের সুযোগ। কিন্তু ঘরের মাঠেও তাঁরাও সেটি করতে পারেনি। প্রথমার্ধে স্টিভ বারঘুইস, মোহাম্মদ কুদুসের গোলের পর ৮৯ মিনিটে ডাচ ক্লাবটির হয়ে গোল করেন ফ্রান্সিসকো কনসিয়াও। এর দুই মিনিট আগে পেনাল্টি থেকে রেঞ্জার্সকে গোল এনে দেন তাভার্নিয়ের। কোনো পয়েন্ট ছাড়াই এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগ শেষ করল রেঞ্জার্স। তৃতীয় হওয়া আয়াক্স নেমে গেছে ইউরোপা লিগে।

জেনে রাখা ভালো: চ্যাম্পিয়নস লিগে প্রথম স্কটিশ ক্লাব হিসেবে কোনো পয়েন্ট ছাড়াই গ্রুপ পর্ব শেষ করল রেঞ্জার্স।

গ্রুপ ‘বি’

লেভারকুসেন ০-০ ব্রুগে

লেভারকুসেনের মাঠে জয় তুলে নিয়ে গ্রুপের সেরা দল হিসেবে শেষ ষোলোয় ওঠার সুযোগ ছিল বেলজিয়ান ক্লাব ব্রুগের সামনে। তা হয়নি। জার্মান ক্লাবটির সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছে ব্রুগে। এতে গ্রুপের দ্বিতীয় সেরা দল হয়েছে আগেই শেষ ষোলো নিশ্চিত করা ব্রুগে। তৃতীয় হয়ে ইউরোপা লিগে নেমে গেছে লেভারকুসেন।

জেনে রাখা ভালো: গ্রুপ পর্বে ৬ ম্যাচের মধ্যে পাঁচ ম্যাচেই ‘ক্লিন শিট’(দলের জাল অক্ষত) রাখলেন ব্রুগে গোলকিপার সিমোন মিগনোলেট।

পোর্তো ২-১ আতলেতিকো মাদ্রিদ

চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্ব থেকে গত সপ্তাহে বিদায় নিশ্চিত হওয়ার পর কাল রাতে আতলেতিকোর সামনে সুযোগ ছিল ইউরোপা লিগে জায়গা করে নেওয়ার। কিন্তু পোর্তোর মাঠে হারে সে সুযোগও কাজে লাগাতে পারল না স্প্যানিশ ক্লাবটি। ২৪ মিনিটের মধ্যে মেহদী তারেমি ও স্টিফেন এস্তাকুইয়োর গোলে পিছিয়ে পড়ে ডিয়েগো সিমিওনের দল। যোগ করা সময়ে আতলেতিকোকে ‘আত্মঘাতী’গোল উপহার দেন ইভান মারকানো। এই হারে গ্রুপের তলানির দল হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্ব শেষ করল আতলেতিকো।

জেনে রাখা ভালো: ২০১১ সালে সিমিওনে আতলেতিকো কোচের দায়িত্ব নেওয়ার পর এই প্রথম নিজেদের গ্রুপের তলানির দল হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লিগ শেষ করল আতলেতিকো মাদ্রিদ।

গ্রুপ ‘সি’

বায়ার্ন মিউনিখ ২-০ ইন্টার মিলান

আগেই শেষ ষোলো নিশ্চিত করা বায়ার্ন মিউনিখ গ্রুপ পর্বে শতভাগ জয়ের লক্ষ্যে মাঠে নেমেছিল। ৩২ মিনিটে বেনজামিন পাভার্দ ও ৭২ মিনিটে চুপো-মোটিংয়ের গোলে লক্ষ্যটা অর্জনও করেছে তাঁরা। ৬ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের দ্বিতীয় সেরা হিসেবে শেষ ষোলোয় ওঠা ইন্টারের সঙ্গে ৮ পয়েন্ট ব্যবধানে গ্রুপের সেরা দল হয়েছে বায়ার্ন। গ্রুপে ৬ ম্যাচের একটিতেও হারেনি জার্মানির ক্লাবটি।

জেনে রাখা ভালো: চ্যাম্পিয়নস লিগে গত চার মৌসুমের মধ্যে তিনবারই গ্রুপ পর্বে শতভাগ জয়ের ধারা বজায় রাখল বায়ার্ন মিউনিখ।

ভিক্তোরিয়া প্লজেন ২-৪ বার্সেলোনা

গ্রুপ পর্ব থেকে আগেই বাদ পড়েছে দুই দল। কিন্তু বার্সেলোনার খেলা দেখে বোঝা যায়নি, এই ম্যাচে তাঁদের পাওয়ার কিছুই নেই। প্লজেনের রক্ষণকে ব্যতিব্যস্ত রাখা বার্সার হয়ে দুই অর্ধেই গোল করেন ফেরান তোরেস। ৬ মিনিটে মার্কোস আলোনসোর গোলে এগিয়ে যাওয়া বার্সার হয়ে শেষ গোলটি পাবলো তোরের (৭৫ মিনিট)। বিরতির পর ৫১ মিনিটে পেনাল্টি থেকে এবং তারপর ৬৩ মিনিটে প্লজেনকে দুটি গোল এনে দেন টমাস চোরে।

জেনে রাখা ভালো: চ্যাম্পিয়নস লিগে বার্সার হয়ে সপ্তম সর্বকনিষ্ঠ গোলদাতা পাবলো তোরে (১৯ বছর ২১২ দিন)।

গ্রুপ ‘ডি’

মার্শেই ১-২ টটেনহাম

ফরাসি ক্লাবটির মাঠে ড্র করলেই শেষ ষোলোয় উঠত টটেনহাম। কিন্তু প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে শ্যানেল এমবেম্বার গোলে এগিয়ে যায় মার্শেই। ৫৪ মিনিটে সেন্টাব্যাক ক্লেঁম লংলের গোলে শেষ পর্যন্ত সমতায় ফেরে ইংলিশ ক্লাবটি। যোগ করা সময়ের পাঁচ মিনিটে এমিল হর্সবার্গের গোলে তুলে নেওয়া জয়ে গ্রুপের শীর্ষ দল হিসেবে শেষ ষোলোর টিকিট কাটে টটেনহাম। গ্রুপের তলানির দল হিসেবে এবার চ্যাম্পিয়নস লিগ শেষ করল মার্শেই।

জেনে রাখা ভালো: চ্যাম্পিয়নস লিগে এবারের আগে সর্বশেষ ২০২০-২১ ও ২০১৩-১৪ মৌসুমে খেলেছে মার্শেই। এই তিনবারই গ্রুপের তলানির দল হিসেবে বিদায় নিল ফরাসি ক্লাবটি।

স্পোর্তিং লিসবন ১-২ ফ্রাঙ্কফুর্ট

ম্যাচের ৩৯ মিনিটে আর্থুর গোমেজের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল পর্তুগিজ ক্লাব স্পোর্তিং। কিন্তু বিরতির পর ১০ মিনিটের ব্যবধানে দুটি গোল পায় আইনট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্ট। ৬২ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করেন দাইচি কামাদা ও ৭২ মিনিটে গোল করেন র‌্যান্ডাল কোলো মুয়ানি। এই গ্রুপের দ্বিতীয় সেরা দল হিসেবে শেষ ষোলোয় উঠল জার্মানির ক্লাব ফ্রাঙ্কফুর্ট।

জেনে রাখা ভালো: চ্যাম্পিয়নস লিগে এই প্রথম শেষ ষোলোর দেখা পেল ফ্রাঙ্কফুর্ট।