ব্রিটিশ পত্রিকা টেলগ্রাফের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে বিশ্বকাপ ঘিরে নিজের স্বপ্নের কথা বলেন সময়ের অন্যতম সেরা তারকা। বিশ্বকাপে নিজের প্রস্তুতি সম্পর্কে নেইমার বলেন, ‘আমি খুশি, আমি ইদানিং ক্লাবে খুব সুখে আছি। এ কারণেই আমার মনে হচ্ছে, আমি খুব ভালোভাবেই তৈরি।’

নেইমার এর আগে দুটি বিশ্বকাপ খেলেছেন। ২০১৪ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে তাঁর দল কলম্বিয়ার বিপক্ষে জিতলেও চোট নিয়ে মাঠ ছাড়েন নেইমার। জার্মানির বিপক্ষে সেমিফাইনালে খেলতে পারেননি। বেলো হরিজন্তের সেই ম্যাচে ঘরের মাঠের দর্শকদের সামনে ৭-১ গোলে উড়ে গেছে ব্রাজিল। আর ২০১৮ বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই ছিটকে গেছে নেইমারের ব্রাজিল।

এবার বিশ্বকাপে আসার আগে নেইমার ইঙ্গিত দিয়েছেন, এটা হতে পারে তাঁর শেষ বিশ্বকাপ। সেদিক থেকে শেষটা রাঙাতে চান তিনি। মেসিরও এটা সম্ভাব্য শেষ বিশ্বকাপ। আর্জেন্টিনার অধিনায়কও দেশের হয়ে একটি বিশ্বকাপ জিততে না পারার অপূর্ণতা ঘোচাতে চান।

এসব নিয়ে কি মেসির সঙ্গে কথা হয়েছে নেইমারের? টেলিগ্রাফের সাক্ষাৎকারে ব্রাজিলিয়ান তারকা বলেছেন, ‘বিশ্বকাপ নিয়ে মেসির সঙ্গে কমই কথা হয়েছে আমার। ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা সেমিফাইনাল বা ফাইনাল হবে কি না, কখনো কখনো আমরা এ নিয়ে আলোচনা করি। আমি তাকে বলেছি, আমরা চ্যাম্পিয়ন হব এবং আমি তাকে হারাব। এটা বলার পর আবার আমরা দুজনই হাসি।’