পরে শেভচেঙ্কোর কাছ থেকে ইউক্রেনের আর্মব্যান্ড নেওয়ার ছবি পোস্ট করে লেভা টুইট করেন, ‘ধন্যবাদ শেভচেঙ্কো। আপনার সঙ্গে দেখা হয়ে ভালো লাগল। বিশ্বকাপে ইউক্রেন অধিনায়কের আর্মব্যান্ড বহন করাটা আমার জন্য সম্মানের হবে। আমি বিশ্বাস করি, খেলাধুলার শক্তি ভালো কাজে লাগানো উচিত ক্রীড়াবিদদের।’

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে প্লে-অফ পর্যন্ত খেলেছিল ইউক্রেন। তবে চূড়ান্ত পর্বের টিকিট আর কাটা হয়নি ওয়েলসের কাছে হারায়। কাতারের মাঠে ইউক্রেন ফুটবল দলের উপস্থিতি না থাকলেও দেশটির কথা মানুষকে জানানো দরকার বলে মনে করেন পোল্যান্ড অধিনায়ক, ‘বিশ্বকাপে আন্দ্রেইর দেওয়া আর্মব্যান্ডটা পরব এটা বোঝাতে যে ইউক্রেনের মানুষ একা নয়, আমরা তাদের ভুলে যাইনি।’

এ বছরের শুরুর দিকে ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা শুরুর পর থেকে ইউক্রেনিয়ানদের পক্ষে সোচ্চার লেভানডফস্কি। যুদ্ধ বাধানোর দায়ে ফিফা ও উয়েফা রাশিয়ার ফুটবল দলকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিষিদ্ধ করে গত ২৬ মার্চ। এর দুদিন আগেই পোল্যান্ড ফুটবল ফেডারেশনের কাছে রাশিয়ার সঙ্গে না খেলার অনুরোধ জানান লেভানডফস্কি।

বার্সা স্ট্রাইকারের যুদ্ধবিরোধী সেই অবস্থানকে আরও বড় আকারে তুলে ধরতে তাঁর হাতে ইউক্রেন অধিনায়কের আর্মব্যান্ড তুলে দেওয়া হয়েছে বলে জানান শেভচেঙ্কো, ‘আমি যখন ইউক্রেনের অধিনায়কত্ব করতাম, এই আর্মব্যান্ডটাই ছিল আমার কাছে সবকিছু—যেখানেই খেলতাম না কেন, মনে হতো, আমি ইউক্রেনের সঙ্গেই আছি। আমার দেশের মানুষের পক্ষে অবস্থান নেওয়ায় লেভাকে আমি ধন্যবাদ জানাই। আমার আর্মব্যান্ডটা শান্তির পথে আহ্বানের কাজে ব্যবহার করা হোক। কারণ, বিশ্বকে বদলে দেওয়ার ক্ষমতা আছে ক্রীড়াবিশ্বের।’

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর ইউক্রেন তাদের আন্তর্জাতিক ম্যাচগুলো খেলছে পোল্যান্ড রাজধানী ওয়ারশতে। আগামী সপ্তাহে উয়েফা নেশনস লিগে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে খেলবে ইউক্রেন।

২০ নভেম্বর শুরু হতে যাওয়া কাতার বিশ্বকাপে পোল্যান্ড খেলবে ‘সি’ গ্রুপে, যেখানে লেভানডফস্কিদের প্রতিপক্ষ হিসেবে আছে আর্জেন্টিনা, মেক্সিকো ও সৌদি আরব। পোলিশদের প্রথম ম্যাচ ২২ নভেম্বর মেক্সিকোর বিপক্ষে।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন