ইংল্যান্ড নারী দলের টুইটার অ্যাকাউন্টে কাল এ নিয়ে টুইট করা হয়, ‘সত্যিই অবিশ্বাস্য! অক্টোবরে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ম্যাচের সাধারণ আসনের সব টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে। বিক্রির জন্য শুধু হসপিটালিটি বক্সের টিকিট আছে।’

তবে ম্যাচটি হবে কি না, তা নির্ভর করছে সেপ্টেম্বরে ফিফা নারী বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ইংল্যান্ডের পারফরম্যান্সের ওপর। সে মাসেই বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে পারলে প্রীতি ম্যাচটি হবে। কিন্তু বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে অক্টোবরে দুই লেগের প্লে–অফ খেলা লাগলে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচের টিকিট ক্রয়কারী ব্যক্তিদের টাকা ফেরত দেওয়া হবে এবং প্লে–অফের টিকিট কেনার সুযোগ পাবেন ফুটবলপ্রেমীরা। ইংল্যান্ড নারী দলের অ্যাকাউন্ট থেকে করা টুইটে খবরটি নিশ্চিত করা হয়।

default-image

সে ক্ষেত্রে এফএ–কে সব রকম প্রস্তুতিই নিয়ে রাখতে হবে। কেননা, যুক্তরাষ্ট্রের মেয়েদের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচের টিকিট ছাড়ার প্রথম দিনেই প্রায় ৬৫ হাজার বিক্রি হয়ে গেছে। বড় টুর্নামেন্টের বাইরে মেয়েদের ফুটবল ম্যাচে সবচেয়ে কম সময়ে এত বেশিসংখ্যক টিকিট বিক্রির নজির আর দেখা যায়নি।

এর আগে মেয়েদের ফুটবলে ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টিকিট বিক্রির রেকর্ড দেখা গেছে গত এপ্রিলে ক্যাম্প ন্যুতে চ্যাম্পিয়নস লিগে বার্সেলোনা-ভলফসবুর্গ ম্যাচে। সে ম্যাচে রেকর্ড ৯১,৬৪৮ জন দর্শক হয়েছিল। মেয়েদের ফুটবলে এটাই কোনো ম্যাচে সর্বোচ্চ দর্শক উপস্থিতির রেকর্ড।

এই তো কয়েক দিন আগেই মেয়েদের ইউরোর ফাইনালে জার্মানিকে ২-১ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ইংল্যান্ড। সে ম্যাচে ছেলে ও মেয়েদের ইউরো মিলিয়ে কোনো ম্যাচে সর্বোচ্চসংখ্যক দর্শক উপস্থিতির রেকর্ড গড়েন ফুটবলপ্রেমীরা। ৮৭,১৯২ দর্শক দেখেছেন ফাইনাল ম্যাচটি।

ইউরো জয়ের পর ইংল্যান্ড নারী দলের জনপ্রিয়তা যেভাবে হু হু করে বাড়ছে, তাতে অক্টোবরে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ম্যাচটি হলে সেখানেও দর্শক উপস্থিতির রেকর্ড দেখা অস্বাভাবিক কিছু নয়।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ‘গার্ডিয়ান’ জানিয়েছে, এফএ যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ম্যাচের টিকিট ছাড়ার পর ফুটবলপ্রেমীদের প্রায় এক ঘণ্টা অপেক্ষা করার পরামর্শ দিয়েছিল। কিন্তু সমর্থকেরা তা শুনলে তো! প্রায় ৪৫ হাজার ফুটবলপ্রেমী টিকিটের জন্য একসঙ্গে ধরনা দেন এফএর ওয়েবসাইটে। এতেই ক্রাশ করে এফএর ওয়েবসাইট।

২০২৩ নারী বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ইউরোপিয়ান অঞ্চল থেকে ‘ডি’ গ্রুপে শীর্ষে রয়েছে ইংল্যান্ড। দুইয়ে থাকা অস্ট্রিয়ার সঙ্গে ৫ পয়েন্ট ব্যবধানে এগিয়ে ইউরো চ্যাম্পিয়নরা। আগামী ৩ সেপ্টেম্বর অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে ড্র কিংবা এর তিন দিন পর লুক্সেমবার্গের বিপক্ষে জিতলেই অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপের মূলপর্বে খেলার টিকিট পেয়ে যাবে ইংল্যান্ড।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন