২৯ বছর বয়সী মারির এজেন্ট আর্তুরো ক্যানেলস বিবিসিকে জানান, মারিকে ছুরিকাঘাত করা হয় পিঠে। তবে গুরুত্বপূর্ণ কোনো অংশ এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি। মোনজার সিইও আদ্রিয়ানো গালিয়ানি স্কাই ইতালিকে জানান, হামলার শিকার হওয়ার সময় মারির স্ত্রী ও সন্তান পাশেই ছিলেন, ‘ট্রলিতে ওর ছেলে ছিল। পাশে ছিল স্ত্রী। কীভাবে কী ঘটেছে, মারি বুঝতেই পারেননি। একপর্যায়ে অনুভব করেন, পিঠে ছুরির আঘাত লেগেছে তাঁর। পরে আক্রমণকারীকে অন্য ব্যক্তির গলায় ছুরি চালাতে দেখেন মারি।’

চিকিৎসকদের উদ্ধৃত করে মোনজো কর্মকর্তা জানান, মারি এখন আশঙ্কামুক্ত, দ্রুতই সুস্থ হয়ে উঠবে। স্প্যানিশ ডিফেন্ডার মারি ব্রাজিলিয়ান ক্লাব ফ্ল্যামেঙ্গো থেকে ২০২০ সালের জানুয়ারিতে আর্সেনালে যোগ দেন। দুই মৌসুম মিলিয়ে সেখানে মাত্র ১৯ ম্যাচ খেলেন তিনি। তবে সিরি আ ক্লাব মোনজোতে নিয়মিত খেলেন মারি। চলতি মৌসুমে ৮ ম্যাচ খেলে ১টি গোলও করেছেন এই ডিফেন্ডার।