পিএসজিতে গিয়ে মেসি ফরাসি ক্লাবটিকে যে আয় এনে দিয়েছেন, সে তুলনায় বার্সার কাছে মেসির দাবিকে ন্যায়সংগত বলেই মনে করছেন অনেকে। মেসি পিএসজিতে আসার পরপরই ক্লাবটির ভাবমূর্তি, আয় ও খেলার মান তরতরিয়ে বেড়েছে।

default-image

মেসি আসার পর এক বছরে পিএসজির আয় চোখ কপালে তোলার মতোই। এই ১২ মাসে পিএসজি আয় করেছে ৭০ কোটি ইউরো বা প্রায় ৭ হাজার ৯৩ কোটি টাকা।
মেসির অর্থনৈতিক প্রভাব

আর্জেন্টাইন পত্রিকা এল ইকোনমিস্টের দেওয়া তথ্যমতে, মেসি আসার পর পিএসজি নতুন ১০টি স্পনসর পেয়েছে। যার ফলে স্পনসর থেকে ক্লাবটির আয় বেড়ে ৩ থেকে ৮ মিলিয়ন ইউরোতে পৌঁছেছে। এর মধ্যে কিছু স্পনসর বেশ বিখ্যাতও বটে।

যেখানে আছে ডিওর, গরিলাস, ক্রিপ্টো ডটকম, প্লেবেটআর, জিওএটি, স্নার্ট গুড থিনস, ভোল্ট, বিগ কোলা ও স্পোর্টস ওয়াটারের মতো বেশ কিছু নামী প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যে নাইকির সঙ্গের স্পনসরশিপ চুক্তিতে পিএসজি প্রতিবছর আয় করে ৭ কোটি ৫০ লাখ ইউরো। সেই চুক্তির মেয়াদ এখন বেড়েছে ২০৩২ সাল পর্যন্ত।

default-image

পিএসজির সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মেসির প্রভাব মেসির আগমন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পিএসজির অনুসারীর সংখ্যা দারুণভাবে বাড়িয়ে দিয়েছে। সব কটি প্ল্যাটফর্ম মিলিয়ে পিএসজি ১ কোটি ৫০ লাখের বেশি অনুসারী পেয়েছে।

যার ফলে মোট অনুসারীর সংখ্যা ১৫ কোটি ছাড়িয়ে গেছে। আর্মস্ট্রংয়ের মতে, টিকটকে পিএসজি প্রতি সপ্তাহে প্রায় ১০ লাখ ৪০ হাজার অনুসারী পেয়েছে, যেখানে সম্মিলিত অনুসারীর সংখ্যা ১ কোটি ছাড়িয়ে গেছে।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন