ম্যাচের পর হতাশ মাশরাফি নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে লিখেছেন, ‘আর্জেন্টিনাকে সমর্থন করা সব সময় ঝুঁকি, কিন্তু কিছুই করার নেই। এই দলকেই সমর্থন দিয়ে যেতে হবে।’

প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের মতো প্রতিপক্ষের কাছে হারে হিসাব বেশ কঠিন হয়ে উঠল আর্জেন্টিনার। রক্ষণই আর্জেন্টিনাকে ভুগিয়েছে বলে মনে করেন মাশরাফি, ‘আবার হয়তো গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হবে, এটা নতুন কিছু নয়। তবে ওদের রক্ষণের চেহারাটা আরেকবার বেরিয়ে পড়ল।’

র‍্যাঙ্কিংয়ের ৫১ নম্বর দল সৌদি আরবের সঙ্গে ড্রয়ের চেয়ে ‘খারাপ’ কিছু আশা করা যায় না বলেও মনে করেন মাশরাফি। দ্বিতীয় গোলের পর ম্যাচে বেশ খানিকটা সময় পেলেও আর্জেন্টিনা ফিরে আসতে পারেনি। এটিকেও এ দলের ‘প্রকৃতি’, মাশরাফি বলেছেন, ‘আর্জেন্টিনা কখনো অন্যদের মতো ফিরে আসতে পারে না, তা আরেকবার প্রমাণিত। ৫০ মিনিট হাতে পেয়েও গোল শোধ করতে পারে না, যেখানে অন্য দল এ অবস্থায় থাকলে ম্যাচ জিতত বা ড্র করত। চাপে আর্জেন্টিনা কখনোই ভালো দল না।’

মেসির এবার বিশ্বকাপ জেতার শেষ সুযোগ, আর্জেন্টাইন সমর্থকদের আশাও তাই অনেক। তবে মাশরাফি এমন হারের পর একটু বেশিই হতাশ, ‘ঠিক এ কারণেই ওদের খেলা নিয়ে কখনোই বড় কিছু আশা করিও না। মস্তিষ্কের ভেতর ঢুকে গেছে দলটা, তাই যা কিছুই হোক দলটার সাথেই আছি। শুভকামনা পরের ম্যাচের জন্য।’