এমন প্রশ্ন ওঠার কারণ রোনালদো নিজেই তৈরি করেছেন। বিশ্বকাপের আগে বোমাই ফাটিয়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ইউনাইটেড কোচ এরিক টেন হাগের জন্য তাঁর এখন আর কোনো শ্রদ্ধা বা সম্মান নেই—এমনটাই বলেছেন রোনালদো। এ ছাড়া সাবেক কিছুদিন ধরে তাঁর একের পর এক সমালোচনা করে যাওয়া সাবেক ইউনাইটেড–সতীর্থ ওয়েইন রুনিকে পাল্টা তির ছুড়েছেন।

বিশ্বকাপ খেলতে জাতীয় দলের সঙ্গে যোগ দিতে যাওয়ার আগে ক্লাবের কোচকে নিয়ে এমন কথা বলায় অনেকেই রোনালদোর সমালোচনা করছেন। গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, কোচ টেন হাগকে নিয়ে এমন কথা বলায় ইউনাইটেড রোনালদোকে জরিমানা করতে পারে। বিশ্বকাপের আগে এসব ঘটনায় মনোযোগটা না আবার নড়ে যায় রোনালদোর!

পর্তুগালের সমর্থক আর রোনালদোর ভক্তরা এ নিয়ে কিছুটা হলেও উদ্বিগ্ন। সবার উদ্বেগ দূর করতেই হয়তো ৩৭ বছর বয়সী রোনালদো বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন। গতকাল এক ইনস্টাগ্রাম পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘নিশ্চিত করেই পুরো মনোযোগ এখন জাতীয় দলের কাজে। একটি লক্ষ্য অর্জনে আমরা ঐক্যবদ্ধ। পর্তুগালের মানুষের স্বপ্নটা আমরা অনুধাবন করতে পারছি।’

‘এইচ’ গ্রুপে ২৪ নভেম্বর ঘানার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে পর্তুগালের বিশ্বকাপ–অভিযান। উরুগুয়ে ও দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে গ্রুপের অন্য দুটি ম্যাচ ২৮ নভেম্বর ও ২ ডিসেম্বর।