সেটি হয়তো ‘ম্যাগপাইজ’দের বিপক্ষে রোনালদোর সর্বশেষ ৫ ম্যাচে ৭ গোলের জন্য। এভারটনের বিপক্ষে আগের ম্যাচে লক্ষ্যভেদ করে ক্লাব ক্যারিয়ারে ৭০০তম গোলের মাইলফলক গড়াও একটা কারণ হতে পারে। কিন্তু ৩৭ বছর বয়সী রোনালদোর দিন যে ফুরিয়ে আসছে, সেটাও স্পষ্ট হয়ে উঠছে।

আজ নিউক্যাসলের বিপক্ষে যেমন গোলের ভালো কিছু সুযোগ পেয়েছিলেন রোনালদো। তিন থেকে চার মৌসুম আগেও সেসব সুযোগ থেকে রোনালদোর গোল করা নিয়ে সন্দেহ হতো কমই। সেই ছবি ধীরে ধীরে যেমন পাল্টে যাচ্ছে, তেমন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডও প্রত্যাশামতো খেলতে পারছে না। ঘরের মাঠ ওল্ড ট্রাফোর্ডে নিউক্যাসলের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্রয়ে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

ওল্ড ট্রাফোর্ডে কিক অফের আগে ছোট্ট এক অনুষ্ঠানও হয়েছে। ইউনাইটেডের কিংবদন্তি কোচ স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন রোনালদোর হাতে সিলভার প্লেট তুলে দেন। ৭০০তম গোলের স্মারক পুরস্কার। আর গোলকিপার ডেভিড দে হেয়ার ইউনাইটেডের হয়ে এটি ছিল ৫০০তম ম্যাচ। ফার্গির হাত থেকে তিনিও স্মারক উপহার পান।

সমর্থকেরা তখন যেমন রোনালদোকে করতালিতে ভাসিয়েছেন, তেমনি ৭১ মিনিটে মার্কাস রাশফোর্ডের বদলি হয়ে উঠে যাওয়ার সময়ও করতালি পেয়েছেন। অর্থাৎ, রোনালদোর সুযোগ নষ্ট করা ইউনাইটেডের সমর্থকেরা মনে রাখেননি। কিন্তু সুযোগ কাজে লাগালে করতালির শব্দ আরও ভারী হতো নিশ্চিত।

গুডিসন পার্কে এভারটনের বিপক্ষে ২-১ গোলে জয়ের ম্যাচের দলে চারটি পরিবর্তন এনে প্রথম একাদশ গড়েন ইউনাইটেড কোচ টেন হাগ। অ্যান্থনি মার্শিয়ালের জায়গায় রোনালদো, রাশফোর্ডের জায়গায় জেডন সানচো, লিন্ডলফের বদলে রাফায়েল ভারান এবং অসুস্থ ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনের পজিশনে ফ্রেডকে খেলান টেন হাগ।

শুরুতে বাঁ প্রান্ত থেকে সানচো এবং মাঝমাঠে ফ্রেডের কাছ থেকে সেভাবে পাস পাননি রোনালদো। সুবিধাজনক জায়গায় দাঁড়িয়েও পাস না পাওয়ার হতাশায় পা ছুড়তে দেখা যায় রোনালদোকে। ২৮ মিনিটে লুক শ-র পাস থেকে সুবিধাজনক জায়গায় দাঁড়িয়েও গোল করতে পারেননি ইউনাইটেড তারকা, বল জালের পাশে মারা ছাড়াও অফসাইড হন। প্রথমার্ধের শেষ দিকেও একটি সুযোগ নষ্ট করেন রোনালদো।

নিউক্যাসল প্রথমার্ধে গোলের সবচেয়ে ভালো সুযোগ পেয়েছে। ২৪ মিনিটি রাইট ব্যাক কিয়েরন ট্রিপিয়েরের ফ্রি কিক ইউনাইটেডের ‘মানবদেয়াল’-এ লেগে বক্সে পড়লে বল পান মিডফিল্ডার জোয়েলিনটন। তাঁর টানা দুটি হেডের একটি লাগে ইউনাইটেডের ক্রসবারে, আরেকটি পোস্টে! বিরতির পর ৪৮ মিনিটে অ্যান্টনির পাস থেকে বল জালে পাঠিয়েও গোল উদ্‌যাপন করতে পারেননি রোনালদো। এবারও অফসাইড!

প্রথমার্ধে দুই দল যতটা রোমাঞ্চকর ফুটবল খেলেছে, দ্বিতীয়ার্ধে তা খেলেনি। সাবধানী ফুটবল খেলেছে দুই দলই। ৮৮ মিনিটে ডান প্রান্ত থেকে রাশফোর্ডের ক্রস বক্সে ঢুকে পড়া ফ্রেড ঠিক সময়ে শট নিতে পারলে গোল হলেও হতে পারত। যোগ করা সময়ের ৫ মিনিটের মাথায় লুক শর ক্রস থেকে রাশফোর্ড হেডে যে গোল মিস করেছেন, সেটা স্রেফ অবিশ্বাস্য। গোলকিপারের ডান পাশে প্রচুর জায়গা থাকতেও বল বাইরে মেরেছেন! নিশ্চিতভাবেই এ ম্যাচে সুযোগ নষ্ট করা পোড়াবে ইউনাইটেডকে।

তবে রেফারির সিদ্ধান্তে দুই দলেরই খুশি হওয়ার কথা নয়। অফসাইডে গোল বাতিলের কয়েক মুহূর্ত পর রোনালদোর আরেকটি গোল বাতিল করেন রেফারি। জেডন সানচো বক্সে ফাউলের শিকার হলেও পেনাল্টি পায়নি ইউনাইটেড। নিউক্যাসলও ম্যাচের ৯ মিনিটে পেনাল্টি পেতে পারত। ক্যালাম উইলসনকে বক্সে ফেলে দেন ইউনাইটেড ডিফেন্ডার ভারান। কিন্তু রেফারি কর্ণপাত করেননি।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে অন্য ম্যাচে অ্যাস্টন ভিলার মাঠে ২-০ গোলে জিতেছে চেলসি। জোড়া গোল করেন চেলসি তারকা ম্যাসন মাউন্ট। জয় পেয়েছে আর্সেনালও। বুকায়ো সাকার একমাত্র গোলে লিডস ইউনাইটেডকে হারিয়েছে ১–০ গোলে।

১০ ম্যাচে ২৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে আর্সেনাল। ৯ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ১০ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে ছয়ে নিউক্যাসল। ৯ ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে চারে চেলসি।