সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কেইলের এমন পোস্টে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন অনেকে। নাভাসের দল পিএসজিতে ফ্রান্সের অনেক খেলোয়াড় আছেন, যাঁদের কাছ থেকে চাইলেই তিনি স্কুলের খোঁজ নিতে পারতেন। কে জানে, হয়তো দুঃসময়ে সতীর্থদের ওপর আস্থা রাখতে পারছেন না নাভাস।

আবার এমনও হতে পারে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের শক্তিতেই বেশি আস্থা তাঁর। তাই সেখানকার অনুসারীদের ওপরই ভরসা করতে চাইছেন। ছেলের স্কুল নিয়ে সচেতনতা দেখানোয় অনেকে তাঁর প্রশংসাও করছেন।

প্যারিসে অনেকটা বাধ্য হয়েই থাকতে হচ্ছে নাভাসকে। পিএসজিতে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন না বলে সর্বশেষ দলবদলে চেয়েছিলেন ক্লাব বদলাতে। তবে পছন্দের ক্লাব খুঁজে পেতে শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হয়েছেন। ধারে নাপোলিতে যাওয়ার কথা শোনা গিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত যা আর হয়নি।

default-image

নাভাসকে দলে টানতে না পারা নিয়ে নাপোলি পরিচালক ক্রিস্তিয়ান জিয়ানতোলি বলেন, ‘আমাদের (নাপোলি) সঙ্গে পিএসজির সম্পর্ক খুবই ভালো। তারা চেয়েছিল ফাবিয়ান রুইজকে এবং আমরা চেয়েছিলাম নাভাসকে। চেষ্টা করেছিলাম খেলোয়াড় অদলবদলের মধ্য দিয়ে এ সমস্যার সমাধান করতে। তবে পিএসজি এবং নাভাসের মধ্যকার সমস্যার কারণে এ চুক্তি সম্ভব হয়নি।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন