ফেডারেশনের ওয়েবসাইটে বিবৃতিতে বলা হয়, ‘ক্রিস্টোফার এনকুকু বিশ্বকাপে খেলতে পারবেন না। মঙ্গলবার অনুশীলন শেষের আগেই চলে গেছেন লাইপজিগের এই স্ট্রাইকার। তিনি বাঁ হাঁটুতে চোট পেয়েছেন। সন্ধ্যায় রেডিওলজিক্যাল পরীক্ষার পর দুর্ভাগ্যজনকভাবে জানা যায়, তন্তু ছিঁড়ে গেছে।’

কাতার বিশ্বকাপ শুরু হবে ২০ নভেম্বর। তার আগেই চোটের কারণে বেশ কয়েকটি ধাক্কা হজম করতে হলো বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। এর আগে ফ্রান্সের দুই মিডফিল্ডার পল পগবা ও এনগোলো কান্তে চোটের কারণে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়েন। সোমবার বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের স্ট্রাইকার মার্কাস থুরাম ও মোনাকোর ডিফেন্ডার অ্যালেক্স দিয়াসাইকে বিশ্বকাপ দলে ডাকে ফ্রান্স।

পিএসজি সেন্টারব্যাক প্রেসনেল কিমপেম্বে হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পাওয়ায় তাঁর বদলি হিসেবে দলে জায়গা পেয়েছেন দিয়াসাই। আর আগে ২৫ জনের দল ঘোষণা করায় যেহেতু একটি জায়গা ফাঁকা ছিল, সেখানে ডাকা হয় ফ্রান্সের হয়ে বিশ্বকাপজয়ী ডিফেন্ডার লিলিয়ান থুরামের ছেলে মার্কাস থুরামকে।

পিএসজির বয়সভিত্তিক প্রকল্পে বেড়ে ওঠা এনকুকু ক্লাবটির মূল দলের হয়ে চার মৌসুম খেলে লিগ আঁ জিতেছেন। লাইপজিগের হয়ে গত মৌসুমে জিতেছেন জার্মান কাপ। ফ্রান্স জাতীয় দলে এ বছরই অভিষিক্ত এনকুকুকে বিশ্বকাপে করিম বেনজেমা ও কিলিয়ান এমবাপ্পের ব্যাকআপ স্ট্রাইকার হিসেবে নেওয়া হয়েছিল।

বুন্দেসলিগার এ মৌসুমে বেশ ভালো ফর্মে ছিলেন ২৫ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকার। ১৫ ম্যাচে করেছেন ১২ গোল। সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ফ্রান্সের অনুশীলনে এদুয়ার্দো কামাভিঙ্গার সঙ্গে বল দখলের লড়াইয়ে আঘাতটা পেয়েছেন এনকুকু।