ছয় গোলের এই রোমাঞ্চপূর্ণ ম্যাচে সবগুলো গোলই হয়েছে বিরতির পর। ৪৮ মিনিটে ওলি ওয়াটকিনসের গোলে এগিয়ে যায় অ্যাস্টন ভিলা। পরের মিনিটেই অ্যান্থনি মার্শিয়ালের গোলে সমতায় ফেরে ইউনাইটেড। ডিওগো দালতের আত্মঘাতি গোলে ৬১ মিনিটে আবারও পিছিয়ে পড়ে এরিক টেন হাগের দল। ৬ মিনিট পর ইউনাইটেডকে আবারও সমতায় ফেরান মার্কাস রাশফোর্ড। ততক্ষণে মার্শিয়ালের বদলি হিসেবে মাঠে নেমেছেন গারনাচো।

বাকি আধঘণ্টা দুর্দান্ত খেলে ম্যাচের মোড় পাল্টে দেন আর্জেন্টাইন তরুণ। উইং–চেরা দৌড়ে ৭৮ মিনিটে ব্রুনো ফার্নান্দেজকে দিয়ে গোল করানোর পর যোগ করা সময়ে দুরপাল্লার পাসে স্কট ম্যাকটমনিকে দিয়েও গোল করান গারনাচো। দুই দলই একাদশে সাতটি করে পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নেমেছিল। হালকা অসুস্থতার জন্য ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে এই ম্যাচে খেলাননি ইউনাইটেড কোচ এরিক টেন হাগ।

গারনাচোর প্রশংসা করার পাশাপাশি সতর্কও করে দিয়েছেন ইউনাইটেড কোচ এরিক টেন হাগ, ‘এটা আসলে আচরণের ওপর নির্ভর করে। সে যদি প্রতিদিন উন্নতি করতে চায় তাহলে দৈনন্দিন জীবনের কাজগুলোও সঠিকভাবে করতে হবে। এটা সম্ভব। আমরা তার সামর্থ্য দেখেছি। সব দলই আক্রমণভাগে এমন খেলোয়াড় চায়। সে প্রতিপক্ষকে নাকাল করতে পারে এবং একদম শেষ মুহূর্তে সঠিক সিদ্ধান্তও নিতে জানে।’

কাল লিগ কাপের চতুর্থ রাউন্ডের ড্রয়ে লিভারপুলকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। চতুর্থ রাউন্ডে বার্নলির বিপক্ষে লড়বে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।