কেন? স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম দুটি কারণ খুঁজে বের করেছে। রবার্ট লেভানডফস্কির লাল কার্ড দেখা এবং ৬ মিনিটে ওসাসুনার প্রথম গোলে মার্কোস আলোনসোর সম্ভাব্য ফাউলের শিকার হওয়া। আলোনসোর ফাউলের শিকার হওয়ার দাবি তুলেছিলেন বার্সার খেলোয়াড়েরা। কিন্তু গিল মানজানো তাতে কর্ণপাত করেননি। গোলটি বহাল রাখেন।

এসব মিলিয়ে প্রথমার্ধ শেষে মেজাজ আর ধরে রাখতে পারেননি বেঞ্চে বসে থাকা পিকে। ছুটে গিয়ে রেফারির সঙ্গে তর্ক জুড়ে দেন। শোনা যাচ্ছে, প্রকাশের অযোগ্য এমন কিছু কটু কথাও নাকি বলেছেন। গিল মানজানো অবশ্য ভড়কে যাওয়ার পাত্র নন।

বড় তারকাদের লাল কার্ড দেখানোয় গিল মানজানোর হাত এতটুকু কাঁপে না। লিওনেল মেসি, লুইস সুয়ারেজ, নেইমার, গ্যারেথ বেল, কাসেমিরোদের লাল কার্ড দেখাতে এতটুকু কার্পণ্য করেননি গিল। কাল রাতে তাঁর লাল কার্ড দেখানোর এই ‘সংগ্রহশালা’য় যোগ হয়েছে রবার্ট লেভানডফস্কির নামও। ৩০ মিনিটে বাজে ফাউল করে লাল কার্ড দেখেন বার্সার পোলিশ স্ট্রাইকার।

কিন্তু নিজের এই সংগ্রহশালায় পিকের নামটাও যে ঢুকে যাবে, স্বয়ং গিল মানজানোই হয়তো তা ভাবেননি। পিকে যে বার্সার শুরুর একাদশের বাইরে ছিলেন। মাঠে থাকলে তো কার্ড দেখার সম্ভাবনাটা বেশি থাকে। পিকে তো বসে ছিলেন বেঞ্চে। তাও আবার, বার্সা তারকার ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ ছিল এটি। মাঠে না নেমে লাল কার্ড দেখে ক্যারিয়ার শেষ হবে—পিকে নিজেও বোধ হয় এমন কিছু ঘুণাক্ষরেও ভাবেননি।

কিন্তু মুহূর্তের উত্তেজনায় সেটাই ঘটেছে। টানেলের ভেতরেও রেফারির সঙ্গে তর্ক হয়েছে পিকের। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে সংবাদ সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, রেফারিকে পিকে বলেছেন, ‘তুমি জানো কাকে মাঠ থেকে বের করে দিলে?’ পিকে এই কথাটা যে লেভার লাল কার্ড দেখা নিয়ে বলেছেন তা পরিষ্কার।

তবে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘মার্কা’ জানিয়েছে, রেফারি গিল মানজানো তাঁর ম্যাচের প্রতিবেদনে অন্য কিছু লিখেছেন। ‘কী কর্নার দিয়েছ সেটা দেখেছ? তুমিই আমাদের সবচেয়ে বেশি ক্ষতি করেছ’—ম্যাচ প্রতিবেদনে রেফারি নাকি পিকের এসব মন্তব্য লিখেছেন, জানিয়েছে মার্কা। এর বাইরেও রেফারির মাকে নিয়ে পিকে লেখার অযোগ্য ভাষায় একটি গালি দিয়েছেন, যা ম্যাচ প্রতিবেদনেও উল্লেখ করেছেন রেফারি।

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘এএস’ জানিয়েছে রেফারি ম্যাচ প্রতিবেদনে পিকেকে লাল কার্ড দেখানোর ব্যাখ্যা দিয়েছেন এভাবে, ‘প্রথমার্ধ শেষে টানেলে থাকতে আমাকে বলা হয়েছে “কী কর্নার দিয়েছ সেটা দেখেছ? তুমিই আমাদের সবচেয়ে বেশি ক্ষতি করেছ।’”

ইএসপিএনের প্রতিবেদনে জানানো হয়, রেফারি তাঁর ম্যাচ প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছেন পিকে তাঁকে একটা ‘লজ্জা’ বলে উপহাস করেছেন।

বার্সা কোচ জাভি পিকের লাল কার্ডের এই সিদ্ধান্ত কতটা সঠিক তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন, ‘(ওসাসুনার) গোলটি পরিষ্কার ফাউল ছিল, বলা হয়েছে আমাকে। সে (আলোনসো) বাধার সম্মুখীন হয়েছে। লাল কার্ড? আমার মতে, সিদ্ধান্তটি সন্দেহজনক। তবে আমি কী মনে করি সেটা গুরুত্বপূর্ণ নয়, রেফারি কী মনে করেন সেটা গুরুত্বপূর্ণ। আমার মতে, তাদের এই সিদ্ধান্তের ব্যাখ্যা দেওয়া উচিত।’

তবে পিকের সর্বনাশ যা হওয়ার তা তো হয়েই গেছে। ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচে মাঠে নামার আগেই লাল কার্ড দেখে বিদায়—এমন চিত্রনাট্য কে চায়! একটাই সন্তুষ্টি পেতে পারেন পিকে, তাঁর শেষ ম্যাচে ওসাসুনাকে ২–১ গোলে হারিয়েছে বার্সা।