লিভারপুলে থাকতেই ২০১৯ সালে প্রথমবারের মতো আফ্রিকার বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার জেতেন মানে। বায়ার্নের হয়ে প্রাক মৌসুম সফরে মঙ্গলবার ডিসি ইউনাইটেডের বিপক্ষে ৬-২ গোলের জয়ে মানে নিজেও লক্ষ্যভেদ করেন। এরপর ২৪ ঘণ্টারও কম সময়ের মধ্যে পুরস্কারটি নিতে যান মরক্কোর রাজধানীতে।

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে শেষ দুই বছরে আফ্রিকার বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার দেওয়া হয়নি। এ হিসেবে মানে পুরস্কারটি জিতলেন টানা দ্বিতীয়বারের মতো।

পুরস্কারটির জন্য মনোনীত তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বীর সংক্ষিপ্ত তালিকায় মানের সঙ্গে ছিলেন সালাহ এবং সেনেগাল ও চেলসির গোলকিপার এদুয়ার্দ মেন্দি। ভোটে দুজনকে পেছনে ফেলে পুরস্কারটি জিতে নেন মানে। গত ফেব্রুয়ারি মিসরকে হারিয়ে সেনেগালের প্রথমবারের মতো আফ্রিকান কাপ অব নেশন্স জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন ৩০ বছর বয়সী এই তারকা। ফাইনালে পেনাল্টি থেকে তাঁর গোলেই জেতে সেনেগাল।

ছয় সপ্তাহ পর বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব প্লে অফে সেই মিসরের বিপক্ষে আবারও পেনাল্টি থেকে তাঁর গোলে তুলে নেওয়া জয়ে কাতারের টিকিট পায় সেনেগাল। লিভারপুলে সালাহ ও মানে মিলে লিগ ও চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতলেও এ দুবারই মিসর তারকাকে পেছনে ফেলে দ্যুতি ছড়ান মানে।

বর্ষসেরার এই পুরস্কার সেনেগালের তরুণদের প্রতি উৎসর্গ করেছেন মানে। সালাহর সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে বলেছেন, ‘লোকে অনেক সময় বলে, সালাহর সঙ্গে আমার প্রতিদ্বন্দ্বিতা আছে। কিন্তু সত্যি বলতে, আমি মনে করি না কোনো খেলোয়াড়ের সঙ্গে আমার প্রতিদ্বন্দ্বিতা আছে। আমাদের মধ্যে ভালো সম্পর্ক আছে। আমরা একে-অপরকে খুদে বার্তা পাঠাই। সংবাদমাধ্যম অনেক সময় বাড়িয়ে বলে। শুধু একজন খেলোয়াড় নয়, আমার সবার সঙ্গেই ভালো সম্পর্ক।’

লিভারপুলের হয়ে গত মৌসুমেও মোট ৫৪ গোল করে আলো ছড়িয়েছেন সালাহ-মানে জুটি। এফএ কাপ ও লিগ কাপ জিতেছে লিভারপুল। লিগে দ্বিতীয় ও চ্যাম্পিয়নস লিগে রানার্সআপ হয়ে মৌসুম শেষ করতে হয়। সালাহ এরপর লিভারপুলের সঙ্গে নতুন চুক্তি করলেও মানে থাকেননি। যোগ দেন বায়ার্নে।

default-image

জার্মান ক্লাবটির হয়ে প্রথমবারের মতো আফ্রিকার বর্ষসেরার পুরস্কারজয়ী ফুটবলারও মানে। ষষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে আফ্রিকার বর্ষসেরার এই পুরস্কার দ্বিতীয়বার জিতলেন তিনি। এর আগে পুরস্কারটি দুবার জিতেছেন মোহাম্মদ সালাহ, দিদিয়ের দ্রগবা, রজার মিলা, নওয়ানকো কানু ও এল হাজি দিউফ। তিনবার এই পুরস্কার জিতেছেন আবেদি পেলে ও জর্জ উইয়াহ। চারবার পুরস্কারটি জিতেছেন স্যামুয়েল ইতো।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন