default-image

কিন্তু তদন্তের পর ফিফার রায়ে বলা হয়, ‘ইকুয়েডর জাতীয় দলের হয়ে কাতার বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের আটটি ম্যাচে বায়রন দাভিদ কাস্তিয়োর মাঠে নামার সম্ভাব্য অযোগ্যতার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফিফা। সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের দেওয়া তথ্য ও প্রমাণাদি বিশ্লেষণ করে ফিফার শৃঙ্খলা কমিটি ইকুয়েডর ফুটবল ফেডারেশনের বিপক্ষে ওঠা সব অভিযোগ খারিজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

default-image

চিলি ফিফার এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবে। কালই আপিলসংক্রান্ত সব কাগজ ফিফায় জমা দিয়েছে দেশটি। চিলি ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক হোর্হে ইয়ুঙ্গি বিবৃতিতে বলেছেন, ‘তদন্ত করে যে তথ্যপ্রমাণ পেয়েছি, সে বিষয়ে আমরা নিশ্চিত। এটা পরিষ্কার যে খেলোয়াড়টি ইকুয়েডরের হয়ে ভুয়া কাগজপত্র ব্যবহার করেছে। এটা শুধু ২০২২ বিশ্বকাপে খেলার বিষয় নয়, খেলাধুলার ফেয়ার প্লে নিয়েও ভাবতে হবে।’

১৯ পয়েন্ট পেয়ে সাত নম্বরে থেকে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব শেষ করে চিলি। পঞ্চম স্থানে থাকা পেরু প্লে অফে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে ছিটকে পড়ে।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন