ঢাকার ঐতিহ্যবাহী সিনেমা হল মধুমিতার কর্ণধার ইফতেখার নওশাদ জানিয়েছেন, বিশ্বকাপজুড়েই তাদের সিনেমা প্রদর্শনী বন্ধ থাকবে। এই সময়ে মধুমিতায় দেখা যাবে বিশ্বকাপের ম্যাচ।

সিরাজগঞ্জ শহরের মিনি সিনেপ্লেক্স রুটস সিনেক্লাবও ঘোষণা দিয়েছে বিশ্বকাপ দেখানোর। কাতার-ইকুয়েডরের উদ্বোধনী ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে বিশ্বকাপের খেলা দেখানোর এই উদ্যোগ। ১৮ ডিসেম্বর ফাইনাল দিয়ে শেষ হবে বিশ্বকাপের প্রদর্শনী। আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের ম্যাচগুলো দেখতে অগ্রিম টিকিটও বিক্রি হয়ে গেছে রুটস সিনেক্লাবের।

সিনেমা হলের রুপালি পর্দায় বিশ্বকাপের ম্যাচ দেখানোর আয়োজন করতে পেরে উচ্ছ্বসিত রুটস সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান সামিনা ইসলাম, ‘দর্শকদের চাওয়া থেকেই আমি এমন উদ্যোগ নিয়েছি। তা ছাড়া আমিও চাই এই প্রজন্মের ছেলেমেয়েরা একসঙ্গে দল বেঁধে খেলা উপভোগ করুক। ফুটবলও তো আমাদের বিনোদনের একটা অংশ। অন্তত যে দুই ঘণ্টা খেলা দেখবে, সেই সময়টুকু তো ছেলেরা ড্রাগ থেকে দূরে থাকবে।’

রাজশাহীর তানোর পৌরসভার আনন্দ সিনেমা হল বছরজুড়ে বন্ধ থাকে। তবে বিশ্বকাপ উপলক্ষে এই সিনেমা হলটি আবারও খুলে দেওয়া হয়েছে। স্থানীয় ব্যবসায়ী আজিজুল ইসলাম ২০ টাকা ও ২৫ টাকা টিকিটের বিনিময়ে সেখানে বড় পর্দায় বিশ্বকাপের খেলা দেখানোর উদ্যোগ নিয়েছেন।

এ উপলক্ষে গত কয়েক দিন এলাকাজুড়ে চলছে ব্যাপক প্রচারণা। আজিজুল ইসলাম বলেন, ‘ফুটবলপ্রেমী দর্শকেরা লোডশেডিংয়ের ঝামেলামুক্ত হয়ে খেলা দেখতে পছন্দ করে। এলাকার দর্শকদের আগ্রহের কথা বিবেচনা করে আমি এই উদ্যোগ নিয়েছি। দর্শকদের কাছ থেকে প্রচুর সাড়া পাচ্ছি। ২২ নভেম্বরের আর্জেন্টিনা-সৌদি আরব ম্যাচের ৩০০ টিকিট এরই মধ্যে বিক্রি হয়ে গেছে।’

রাজধানী ঢাকায় টি-স্পোর্টসের সহযোগিতায় ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) উদ্যোগে বিভিন্ন জায়গায় বড় পর্দায় খেলা দেখানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। বরাবরের মতো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে থাকছে বিশ্বকাপের ম্যাচ দেখানোর ব্যবস্থা। এ ছাড়া মতিঝিলের ফুটবল ফেডারেশন ভবনের সামনের লনে, ধানমন্ডি রবীন্দ্রসরোবরে দেখানো হবে খেলা। বাফুফের উদ্যোগে চট্টগ্রামের ফিজিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারেও বড় পর্দায় খেলা দেখা যাবে।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন রাজধানীর নয়টি স্থানে বড় পর্দায় খেলা দেখানোর উদ্যোগ নিয়েছে। উত্তরা রবীন্দ্রসরণি, মানিক মিয়া অ্যাভিনিউ, হাতিরঝিল মুজিব চত্বর, গুলশান-২-এর নগর ভবন, মোহাম্মদপুর বছিলার লাউতলা খালসংলগ্ন মাঠ, প্যারিস রোডসংলগ্ন মাঠ, কাচকুড়া কলেজ মাঠ, শ্যামলী পার্ক ও খিলগাঁও তালতলা মার্কেটে খেলা দেখাবে সিটি করপোরেশন।

ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের উদ্যোগে মহাখালীর তিতুমীর কলেজ চত্বরে বড় পর্দায় দেখা যাবে বিশ্বকাপ। কলেজের মাঠে এরই মধ্যে বসানো হয়েছে ১৬ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৮ ফুট প্রস্থ বিশাল আকারের এলইডি স্ক্রিন। নিজেদের ক্যাম্পাসে বসে খেলা দেখার জন্য মুখিয়ে অর্থনীতি বিভাগের স্নাতকোত্তরের ছাত্র রিপন মিয়া, ‘আমাদের কলেজে ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েদেরও ছাত্রাবাস রয়েছে।

অন্য সময় আমরা টিএসসিতে গিয়ে খেলা দেখতাম। এবার আমাদের কলেজে বড় পর্দায় খেলা দেখানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বিশ্বকাপ ঘিরে তাই বাড়তি উন্মাদনা ছড়িয়ে পড়েছে সবার মধ্যে। বিশ্বকাপজুড়ে আমরা উৎসব করব এবং প্রিয় দলের খেলা দেখব।’