নেইমার সান্তোসে থাকতে তাঁর ৪০ শতাংশ স্বত্বের মালিক ছিল ডিআইএস। প্রতিষ্ঠানটির অভিযোগ, নেইমারের সান্তোস-বার্সেলোনা দলবদলে আসল অর্থের পরিমাণ প্রকাশ করা হয়নি। এতে ডিআইএস স্বত্ব অনুযায়ী যে টাকাটা পাওয়ার কথা ছিল তার চেয়ে কম পেয়েছে।

অভিযোগ অস্বীকার করে ২০১৭ সালে স্পেনের উচ্চ আদালতে আপিল করেছিলেন নেইমার। কিন্তু হেরে যাওয়ায় বিচার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়।

বার্সেলোনা ছেড়ে ২০১৭ সালেই পিএসজিতে চলে যান নেইমার। তবে বিচার-প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে গত সপ্তাহে বার্সেলোনার আদালতে দাঁড়াতে হয় তাঁকে।

ইএসপিএনের খবরে বলা হয়, সব আসামিকে জেরার পর স্পেনের সরকারি আইনজীবী লুইস গার্সিয়া ক্যান্টন আদালতকে বলেন, ‘ন্যূনতম দুর্নীতিরও আভাষ পাওয়া যায়নি।’ বিচারকদের কাছে ‘বিবাদীদের খালাস’ আবেদন জানান তিনি।

বিচার অবশ্য এখনো শেষ হয়নি। সোমবার এই মামলার বিচারকাজের শেষদিন। ওই দিন ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলবেন নেইমার।

তাঁর আগে আইনজীবীদের কাছে থেকে নির্দোষ আখ্যা পাওয়ার টুইটারে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন নেইমার। ব্রাজিলের জার্সিতে মাঠে উদ্‌যাপনের একটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘নিজের ওপর বিশ্বাস রাখুন এবং ঈশ্বর আপনাকে দেখাবেন আপনি কতটা শক্তিশালী’।