কখনো ভেবেছিলেন এমন দিন আসবে?

আবুল কালাম: অবশ্যই এটা বিরাট এক পুরস্কার আমার জন্য। গর্বেরও। আমি জীবনেও কল্পনাও করিনি এমন কিছু হবে। শেষ বয়সে এসে বিরাট এক পুরস্কার পেলাম।

আপনার পরিবারের জন্য নিশ্চয়ই বিষয়টি গর্বের।

আবুল কালাম: আমার পরিবারের সবাই খুশি। আমার ছেলেমেয়েরা ফোন দিয়ে বলছে, আমাকে নাকি টিভিতে দেখাচ্ছে। ওরা সবাই খুশি। ওদের জন্যও বিরাট ব্যাপার। আমাদের তো সাধারণ কর্মচারীদের তো কখনো এমন আলোচনায় আসার কথা না। সবার জন্য বিষয়টা নতুন। সবাই রোমাঞ্চিতও।

আপনার ছবি এখন দেশের সব টিভি চ্যানেলে। কেমন লাগছে?

আবুল কালাম: আমার আরেকটা পরিচয় আছে। আমি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের গাড়ি চালাই। সেখানে ১২ বছর ধরে কাজ করছি। ওখানকার ছাত্ররাও আমাকে ফোন দিচ্ছে। সবাই বলছে, কালাম ভাই, আপনি তো সেলিব্রিটি হয়ে যাচ্ছেন। সবাই আপনাকে দেখছে। খুব আনন্দ অনুভব করছি।

default-image

এই মুহূর্তটা নিশ্চয়ই স্মরণীয় হয়ে থাকবে…

আবুল কালাম: অবশ্যই। আমি এখন অপেক্ষায় আছি, কখন মেয়েরা আসবে। গাড়িতে উঠবে। আজ ঢাকার রাস্তায় আমার গাড়িতে ওরা চড়বে। দিনটা আমি জীবনেও ভুলব না। আজীবন মনে থাকবে এটা।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন