default-image

তৃতীয় বা চতুর্থ হওয়ার গাণিতিক সুযোগ অবশ্য আছে মোহামেডানের সামনে। কিন্তু সে ক্ষেত্রে মোহামেডানের ভালো ফলের পাশাপাশি দলটিকে প্রার্থনায় থাকতে হবে, ৩৪ পয়েন্ট পাওয়া সাইফ ও শেখ জামাল যেন শেষ ৩ ম্যাচে খারাপ করে। তাই বাস্তবতা বলছে, মোহামেডানের তিন বা চারে থাকাও কঠিন। পঞ্চম হওয়াটাও সহজ নয়, কারণ, ঘাড়ের ওপর নিশ্বাস ফেলছে বাংলাদেশ পুলিশ। ২৬ পয়েন্ট নিয়ে পেছনে আছে চট্টগ্রাম আবাহনী। এই দলগুলোর শেষ তিন রাউন্ডের ফলই নির্ধারণ করে দেবে মোহামেডান কত নম্বরে থেকে এবারের প্রিমিয়ার লিগ শেষ করবে।

গত বছর চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস থেকে ২২ পয়েন্ট কম নিয়ে লিগে ষষ্ঠ হয়েছিল মোহামেডান। এবার একটু ওপরের দিকে ওঠার আশা ক্লাব ম্যানেজমেন্টের। কোচ শফিকুল যেমন বলছেন, ‘শেষ দিকের ম্যাচগুলোর ফল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা চেষ্টা করব বাকি ম্যাচগুলো থেকে যতটা সম্ভব পয়েন্ট নিয়ে ওপরের দিকে থাকতে।’

default-image

সেই লড়াইয়ে আজ প্রথমার্ধে এক গোলে এগিয়ে ছিল মোহামেডান। লিগে গত কয়েক ম্যাচে আলো ছড়ানো মিডফিল্ডার মোরসালিনের পাস থেকে ওবেমনি বল নিয়ে ঢোকেন বারিধারার বক্সে। বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে বারিধারার ডিফেন্ডার ইউসুফ বাবুর পায়ে লেগে চলে যায় জালে। রেফারি এটি আত্মঘাতী গোল দিয়েছেন। দ্বিতীয় গোল শাহরিয়ার ইমনের ক্রসে সোলেমান দিয়াবাতের হেডে। যোগ করা সময়ে তৃতীয় গোল ওবে মোনেকের। বক্সের ওপর থেকে কোনাকুনি শটে জালে পাঠান তিনি। বারিধারার গোলকিপার বলটা দেখতেই পারেননি।

লিগের প্রথম পর্বে শন লেনের মোহামেডান গোলশূন্য ড্র করেছিল বারিধারার সঙ্গে। ফিরতি ম্যাচে শফিকুলের মোহামেডানের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি বারিধারা। চলতি লিগে এটি মোহামেডানে সপ্তম জয়।

আজ দিনের অন্য দুটি ম্যাচই গোলশূন্য ড্র হয়েছে। শেখ রাসেল-মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র, বাংলাদেশ পুলিশ-রহমতগঞ্জ ম্যাচে ড্র হওয়ায় মূল্যবান পয়েন্ট পেয়েছে মুক্তিযোদ্ধা ও রহমতগঞ্জ। দুই দলই যে আছে অবনমন এলাকায়।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন