রোনালদো এরপর পাড়ি জমিয়েছেন সৌদি আরবে। নাম লিখিয়েছেন রিয়াদের ক্লাব আল নাসরে। মিক্সড মার্শাল আর্টকে বিদায় বলা এনগান্নু ছুটি কাটাতে সেই রিয়াদেই গেছেন। সেখানেই গতকাল দেখা হয়েছে দুই কিংবদন্তির।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে রোনালদো–এনগান্নুর একটি ভিডিও ভেসে বেড়াচ্ছে। ভিডিওতে দেখা গেছে, রোনালদো–এনগান্নু হাত মুষ্টিবদ্ধ করে লড়াইয়ের ভঙ্গিতে দাঁড়িয়ে আছেন। লড়াই শুরুর আগমুহূর্তে রোনালদো সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন এবং এনগান্নুকে জড়িয়ে ধরে অট্টহাসিতে মাতেন। মজার ছলেই যে তাঁরা এমনটা করেছেন, সেটা বুঝতে বাকি থাকার কথা নয়।

পরে দুজনই সেই মুহূর্তের বেশ কয়েকটি ছবি পোস্ট করেছেন। ৩৬ বছর বয়সী এনগান্নু রোনালদোকে ‘সর্বকালের সেরা’ ও ‘বড় অনুপ্রেরণা’ অ্যাখ্যা দিয়ে লিখেছেন, ‘রিয়াদে আজ (কাল) সর্বকালের সেরার সঙ্গে আড্ডা দিতে খুব ভালো লেগেছে। সুন্দর কথাগুলোর জন্য তাঁকে ধন্যবাদ। সত্যিই তিনি বড় অনুপ্রেরণার নাম।’

রোনালদো লিখেছেন, ‘বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সিস এনগান্নুর সঙ্গে দেখা হওয়ায় দারুণ লাগছে। ফুটবল আমার আবেগের জায়গা। তবে টিভিতে আমি অন্য খেলাও দেখি। ফুটবল বাদ দিয়ে অন্য কিছু দেখতে হলে আমি বক্সিং বা ইউএফসি ফাইট বেছে নিই।’

ইউএফসি কর্তৃপক্ষকে প্রত্যেক ফাইটারের জন্য পালাক্রমে স্বাস্থ্যবিমার তালিকা করার দাবি জানিয়েছিলেন এনগান্নু। যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানিটি তাতে সায় না দেওয়ায় অভিমানে সরে দাঁড়ান ক্যামেরুনিয়ান বংশোদ্ভূত ফরাসি ফাইটার। ক্যারিয়ারে এমন দুঃসময় রোনালদোরও এসেছে। এ অবস্থা থেকে কীভাবে ঘুরে দাঁড়াতে হয়, সেটা রোনালদোর চেয়ে ভালো কে জানেন! পর্তুগিজ মহাতারকা হয়তো আড্ডার ফাঁকে এনগান্নুকে সে ব্যাপারে পরামর্শ দিয়েছেন।

সৌদি আরবে যাওয়ার তিন সপ্তাহ হতে চললেও এখনো আল নাসরের হয়ে অভিষেক হয়নি রোনালদোর। যদিও লিওনেল মেসি–নেইমার–কিলিয়ান এমবাপ্পেদের পিএসজির বিপক্ষে রিয়াদ অলস্টারের হয়ে একটি প্রীতি ম্যাচ খেলেছেন রোনালদো। ম্যাচে জোড়া গোল করলেও মেসি–নেইমার–এমবাপ্পেদের সঙ্গে পেরে ওঠেনি তাঁর দল।

আল নাসর–সমর্থকদের অপেক্ষার পালা ফুরাতে পারে আর কয়েক ঘণ্টা পর। আজ রাতে ইত্তিফাকের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে সৌদি লিগে অভিষেক হতে পারে রোনালদোর।