বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত মৌসুমে ব্রেকার্সে নিজেকে তারকা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন ওয়েবস্টার। দলটির সঙ্গে দুই বছরের চুক্তি করেছেন গত জুলাইয়ে। কিন্তু ‘ব্যক্তিগত কারণে’ টিকা নিতে অস্বীকৃতি জানানোয় তাঁকে ছাড়তে বাধ্য হলো নিউজিল্যান্ড ব্রেকার্স। পারষ্পারিক সমঝোতার ভিত্তিতেই ক্লাব ছেড়েছেন ওয়েবস্টার, জানিয়েছে নিউজিল্যান্ডের সংবাদমাধ্যম ‘এনজেড হেরাল্ড’।

নিউজিল্যান্ড থেকে একমাত্র দল হিসেবে ওশেনিয়ার অঞ্চলের প্রিমিয়ার এই বাস্কেটবল প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে থাকে ব্রেকার্স। করোনা মহামারির কারণে গত মৌসুমটা ঘরেই কেটেছে দলটির। ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা ছিল। নতুন মৌসুম শুরুর আগেই অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে অনুশীলন করতে চায় ব্রেকার্স।

default-image

কিন্তু ওয়েবস্টার টিকা নিতে না চাওয়ায় দলটির অস্ট্রেলিয়ায় যাওয়া জটিলতার মধ্যে পড়ে যায়। ১৮ নভেম্বর থেকে শুরু হবে এএনবিএল। এদিকে অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া রাজ্যের প্রশাসন জানিয়েছে, শুধু পূর্ণ ডোজের টিকা নেওয়া ব্যক্তিরাই অবাধে চলাফেরা করতে পারবেন।

আগামী ২৬ অক্টোবরের মধ্যে ভিক্টোরিয়া রাজ্যের ৭০ শতাংশ লোকের টিকা দেওয়া সম্পন্ন হবে বলে মনে করছে সেখানকার প্রশাসন। ৭০ শতাংশ টিকা নেওয়ার হারে সেখানকার প্রশাসন রাজ্য থেকে রাজ্য ভ্রমণের ছাড়পত্র দিতে রাজি না। টিকা নেওয়ার হার ৮০ শতাংশে উন্নীত হলে ছাড়পত্র দেওয়া হবে।

default-image

ওয়েবস্টারকে ছেড়ে দেওয়ার বিষয়ে ব্রেকার্স মালিক ম্যাট ওয়ালশ বলেন, ‘টিকা নেওয়া নিয়ে প্রতিটি খেলোয়াড়ের ইচ্ছা–অনিচ্ছাকে আমি সমর্থন জানাই। টাইয়ের জন্য ক্লাবের দরজা খোলা থাকবে। দূর্ভাগ্যজনকভাবে আমরা অন্যরকম এক সময়ে বসবাস করছি। টিকা নেওয়া ছাড়া সে ভ্রমণের অনুমতি পাবে না, আর সেটি না পেলে এই মৌসুমে সে আমাদের হয়ে খেলতেও পারবে না।’

অন্য খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন