গতকাল প্রথম ম্যাচে ফিজিকে হারায় ৩-০ সেটে। এরপর গায়ানাকে ৩-২ সেটে হারিয়ে শেষ আট নিশ্চিত করে বাংলাদেশ। দলগত ইভেন্টে প্রথম ম্যাচে দ্বৈতে রামহিম লিয়ন বম ও মুহতাসিন আহমেদ ৩-২ গেমে হারান জোনাথন ফন লাং ও ক্রিস্টোফার ফ্রাঙ্কলিনকে। এরপর এককে রিফাত সাব্বির ১-৩ গেমে হেরে যান শিমার ব্রিটনের কাছে। কিন্তু তৃতীয় মুহতাসিন ৩-১ গেমে হারান জোনাথনকে।

default-image

তবে রামহিমকে চতুর্থ ম্যাচে ৩-০ গেমে ব্রিটন হারিয়ে দিলে ম্যাচের ভাগ্য গড়ায় শেষ সেটে। ম্যাচ নির্ধারণী সেটে সাব্বিরের প্রতিপক্ষ ছিলেন ফ্রাঙ্কলিন। দারুণ উত্তেজনা ছড়ানো ম্যাচে শেষ পর্যন্ত সাব্বির ৩-২ গেমে জিতে বাংলাদেশকে নিয়ে যান কোয়ার্টার ফাইনালে। আজ বাংলাদেশ সময় বিকেল পাঁচটায় গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড।

বাংলাদেশের সব ম্যাচ ভেন্যুতে বসে দেখেছেন অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। বাংলাদেশের এই সাফল্যে তাৎক্ষণিক অর্থ পুরস্কারের ঘোষণা দেন সেনাপ্রধান।

প্রত্যেক খেলোয়াড়কে তিনি ৫০ হাজার করে টাকা পুরস্কার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। বাংলাদেশ টেবিল টেনিস ফেডারেশনের সহসভাপতি খোন্দকার হাসান মুনীর ভালো মানের একজন বিদেশি কোচের প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরেন বিওএর সভাপতির কাছে।

ইংল্যান্ড যাওয়ার আগে পল্টনের শহীদ তাজউদ্দীন ইনডোরে ভালোভাবে অনুশীলন করতে পারেনি টেবিল টেনিস দল। ইনডোরের সংস্কারকাজ চলতে থাকায় যাযাবরের মতো এখানে–সেখানে অনুশীলন করেছে। কখনো জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের বারান্দায়, কখনো অন্য কোনো ইনডোরে অনুশীলন করেছে। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে খেলতে যাওয়া দলগুলোর মধ্যে বলার মতো সাফল্য দেখালেন টেবিল টেনিস খেলোয়াড়েরা।

অন্য খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন