সেরেনা উইলিয়ামসকে হারিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালে উঠেছেন নাওমি ওসাকা (বাঁয়ে)।
সেরেনা উইলিয়ামসকে হারিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালে উঠেছেন নাওমি ওসাকা (বাঁয়ে)। ছবি: রয়টার্স

এবারও পারলেন না সেরেনা উইলিয়ামস। এবারের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেও মার্গারেট কোর্টের সর্বকালের গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের রেকর্ড ছোঁয়া হলো না আমেরিকান টেনিস তারকার। আজ যে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের সেমিফাইনালে নাওমি ওসাকার কাছে হেরে বিদায় নিলেন ২৩টি গ্র্যান্ড স্লামজয়ী।

চার বছর আগে ২০১৭ সালে এই অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেই ক্যারিয়ারের ২৩তম গ্র্যান্ড স্লাম একক শিরোপা জিতেছিলেন সেরেনা। এরপর মাতৃত্বকালীন ছুটি কাটিয়ে ফেরার পর ১১টি গ্র্যান্ড স্লাম সেরেনা শুরু করেছেন কোর্টের ২৪তম গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের রেকর্ড ছোঁয়ার সম্ভাবনা নিয়ে। এর মধ্যে চারটি গ্র্যান্ড স্লামের ফাইনালে উঠেও হেরেছেন ৩৯ বছর বয়সী সেরেনা।

আজ অবশ্য বয়সে ১৬ বছরের ছোট নাওমি ওসাকার কাছে পাত্তাই পাননি সেরেনা। তিনবারের গ্র্যান্ড স্লাম চ্যাম্পিয়ন জাপানি মেয়ে ওসাকা মাত্র সোয়া এক ঘণ্টাতেই জিতে নিয়েছেন মেয়েদের প্রথম সেমিফাইনালটা। ওসাকা জিতেছে ৬-৩, ৬-৪ গেমে। আগের তিনবারই গ্র্যান্ড স্লাম ফাইনালে উঠে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন ওসাকা।

বিজ্ঞাপন
default-image

সেরেনার বিপক্ষে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের গোপন রহস্যও ম্যাচের পর ফাঁস করলেন ওসাকা। জাপানি মা ও হাইতিয়ান বাবার মেয়ে ওসাকা জানালেন, ম্যাচের আগে জাপানি খাবারের বদলে গ্রিক খাবার খাওয়াটাই সৌভাগ্য বয়ে এনেছে।

টেনিস সার্কিটে একটু-আধটু কুসংস্কারাচ্ছন্ন বলে দুর্নাম আছে ওসাকার। এবারের টুর্নামেন্টেই ক্যারোলিনা গার্সিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের আগে কী ভয়টাই পাচ্ছিলেন। আগের রাতে দুঃস্বপ্ন দেখার পর নাকি ওসাকার মনে হচ্ছিল, তিনি নিশ্চিতভাবেই হারতে যাচ্ছেন।

এবার আবার সেরেনাকে হারানোর পেছনে নিজের ভালো খেলা ছাড়াও আরেকটি কারণ খুঁজে বের করলেন ওসাকা। জানালেন, এতে গ্রিক খাবারের ভূমিকা না থেকে পারেই না! ওসাকা জাপানি খাবার ছেড়ে গত বুধবার খাওয়া শুরু করেন গ্রিক খাবার। এরপর কাল যখন গ্রিসের স্তেফানোস সিৎসিপাস ছেলেদের কোয়ার্টার ফাইনালে হারিয়ে দিলেন রাফায়েল নাদালকে, তখনই নাকি ওসাকা বুঝে ফেলেন কী হতে যাচ্ছে সেরেনার বিপক্ষে, ‘খুবই অদ্ভুত ব্যাপার। আগের তিন সপ্তাহ ম্যাচের আগে জাপানি খাবার খেতাম। আমি এরপর গ্রিক খাবার খাওয়ার সিদ্ধান্ত নিলাম। খাওয়ার পর ঘুমালাম, জেগে উঠলাম আর দেখলাম সিৎসি (সিৎসিপাস) নাদালকে হারিয়ে দিল। আমি ভাবলাম, আরে, এটা সৌভাগ্যের চিহ্ন।’

অন্যদিকে গ্র্যান্ড স্লামে আরেকবার ব্যর্থ হওয়ার পর সংবাদ সম্মেলনে কেঁদেকেটেই একাকার হয়ে সেরেনা জানালেন, আজ শুধু ভুলই করেছেন তিনি, ‘ভুলগুলোই আজ পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। আমি অসংখ্য ভুল করেছি আজ। সত্যি বলছি, আমার সুযোগ ছিল জেতার। আমি ৫-০ গেমেও এগিয়ে যেত পারতাম। কিন্তু দিনটা হয়ে গেল বড় ভুলের।’

কেন এত ভুল, সেই প্রশ্নের জবাব দেওয়ার সময়ই কান্নায় ভেঙে পড়ে সেরেনা বলেন, ‘আমি জানি না।’

default-image

আগামী শনিবার ফাইনালে ওসাকা মুখোমুখি হবেন যুক্তরাষ্ট্রের জেনিফার ব্র্যাডির। আজ দ্বিতীয় সেমিফাইনালে চেক প্রজাতন্ত্রের কারোলিনা মুখোভাকে ৬-৪, ৩-৬, ৬-৪ গেমে হারিয়েছেন ব্র্যাডি। এই প্রথম কোনো গ্র্যান্ড স্লামের ফাইনালে উঠলেন ২৫ বছর বয়সী মার্কিন খেলোয়াড়।

বিজ্ঞাপন
টেনিস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন