পদত্যাগের ঘোষণা দিয়ে টুইট করেছিলেন ডরসি। আবার অনেকে সে খবর পোস্ট করেছেন টুইটারে। তেমনই এক টুইটের স্ক্রিনশট নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টের স্টোরিজে পোস্ট করে কঙ্গনা লিখেছেন, ‘বাই চাচা জ্যাক।’

জ্যাকের বিদায়ে কঙ্গনা আনন্দিত হয়েছেন, তা সরাসরি বলার সুযোগ নেই। তবে সে জায়গায় পরাগ আগরওয়ালের আগমনে খুব খুশি হয়েছেন ভারতীয় গায়িকা শ্রেয়া ঘোষাল। কারণ, পরাগ তাঁর দীর্ঘদিনের বন্ধু। টুইটারে শ্রেয়া লিখেছেন, ‘অভিনন্দন পরাগ, তোমাকে নিয়ে আমরা অত্যন্ত গর্বিত।’

এরপর নেটিজেনরা তাঁদের দুজনের পুরোনো ছবি এবং টুইট খুঁজে বের করে পোস্ট করতে শুরু করেন। সঙ্গে পরাগের জন্য অভিনন্দনের বন্যা বইয়ে দেন টুইটারে। আর তাতে যোগ দিয়েছেন টেসলার সিইও ইলন মাস্ক এবং গুগলের সিইও সুন্দর পিচাই।

পরাগ কম্পিউটার বিজ্ঞানে স্নাতক করেন মুম্বাইয়ের ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (আইআইটি) বোম্বে থেকে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির টুইটার পেজ থেকেও পরাগকে অভিনন্দন জানানো হয়।

আইআইটি বোম্বের পর যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান তিনি। সেখানে স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি থেকে স্নাতকোত্তর এবং পিএইচডি করেন। সে সময় ইন্টার্ন হিসেবে কাজ করেন মাইক্রোসফট, ইয়াহু, এটিঅ্যান্ডটি ল্যাবসের গবেষণা দলে।

পরাগ সফটওয়্যার প্রকৌশলী হিসেবে টুইটারে যোগ দেন ২০১১ সালে। ২০১৭ সালে তাঁকে প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা করা হয়। আর এবার এল সিইও হওয়ার খবর।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন