অনলাইনে ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত রাখতে অনেকেই পরিচিত বা অপরিচিত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের তৈরি ভিপিএন ব্যবহার করেন। বেশ কিছু ভিপিএন তথ্যের নিরাপত্তা দেওয়ার কথা বলে নিজেরাই তথ্য চুরি করে থাকে। ফলে গুগলের নতুন এ উদ্যোগ কম্পিউটার ব্যবহারকারীদের কাছে জনপ্রিয়তা পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

প্রাথমিকভাবে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, ফ্রান্স, মেক্সিকোসহ ২২টি দেশের নিবন্ধিত গুগল ওয়ান ব্যবহারকারীরা এ সুবিধা পাবেন। অ্যাপলের আই ক্লাউড প্লাস ভিপিএন থেকে গুগলের ভিপিএনে বেশ পার্থক্য রয়েছে। কারণ, গুগলের ভিপিএনে একই দেশের অন্য আইপি ঠিকানা ব্যবহার করা হয়। ফলে ব্যবহারকারীর সুনির্দিষ্ট অবস্থান জানা না গেলেও তার দেশ সম্পর্কে অন্যরা জানতে পারেন।

২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে গুগল ওয়ান ক্লাউড স্টোরেজ ব্যবহারকারীদের জন্য ভিপিএন চালু করে গুগল। এরপর এ সেবা অন্য দেশেও চালু করা হয়। সম্প্রতি নিজেদের তৈরি পিক্সেল ৭ এবং পিক্সেল ৭ প্রো মডেলের মুঠোফোনে বিল্টইন ভাবে ভিপিএনটি যুক্ত করেছে গুগল।
সূত্র: দ্য ভার্জ