সিইএসকে কেন্দ্র করে হারম্যান নিজেরাই আলাদা প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করেছিল লাস ভেগাসের ভার্জিন হোটেলে। সাউন্ড সিস্টেমের উন্নয়নে গবেষণা ও উদ্ভাবনে সবচেয়ে বেশি জোর দিয়ে থাকে হারম্যান। এ বিষয়ে হারম্যানের কারডন বিভাগের মহাব্যবস্থাপক জনি উইলিয়ামস জানান, প্রচলিত সাউন্ড সিস্টেমের বাইরেও বিভিন্ন পণ্যের শব্দের মান উন্নয়নে কাজ করছে হারম্যান।

চুক্তির বিষয়ে ওয়ালটন হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম মুর্শেদ প্রথম আলোকে বলেন, ‘ওয়ালটন টেলিভিশনের শব্দ প্রযুক্তি নিয়ে হারম্যানের সঙ্গে আমরা যৌথভাবে কাজ করব। সফটওয়্যার ও হার্ডওয়্যারের বাইরে একটা বড় অংশ থাকবে গবেষণাকেন্দ্রিক। আমি বিশ্বাস করি এতে গ্রাহকদের কাছে ওয়ালটন টেলিভিশন দেখার অভিজ্ঞতা আরও ভালো হবে। শব্দের এ প্রযুক্তি ভবিষ্যতে ওয়ালটনের অন্যান্য পণ্যেও ব্যবহারের চেষ্টা করব।’

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটনের টেলিভিশন বিভাগের প্রধান ব্যবসায় কর্মকর্তা মোস্তফা নাহিদ হোসেন, ওয়ালটন যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট তাসরিকুল ইসলাম এবং হারম্যানের বিক্রয় পরিচালক অলিভার বরড্যু।