ভিডিও ও ছবিভিত্তিক আধেয় (কনটেন্ট) নির্মাতাদের জন্য নীতিমালা তৈরি করছে কিশোর-কিশোরীদের কাছে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম স্ন্যাপচ্যাট। এদিকে নতুন এক সুবিধা যোগ করেছে স্ন্যাপচ্যাট, যেটির মাধ্যমে ছেলেমেয়েরা কোন ধরনের কনটেন্ট স্ন্যাপচ্যাটে দেখতে পাবে না তা নিয়ন্ত্রণ (প্যারেন্টাল কন্ট্রোল) করতে পারবেন অভিভাবকেরা।

‘ফ্যামিলি সেন্টার’ নামে গত বছর একটি সুবিধা চালু করে স্ন্যাপচ্যাট। এবার এ সেবায় অভিভাবকদের জন্য আধেয় যাচাই-বাছাই করার সুযোগ দিচ্ছে স্ন্যাপচ্যাট। এক বার্তায় স্ন্যাপচ্যাট জানিয়েছে, আধেয় যাচাই-বাছাই সুবিধা ব্যবহার করে স্ন্যাপচ্যাটে কিশোর-কিশোরীদের জন্য সংবেদনশীল আধেয় প্রদর্শন নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন অভিভাবকেরা। ফলে কিশোর-কিশোরীর স্টোরি কিংবা ভিডিও বিভাগ অভিভাবকের নিয়ন্ত্রণে থাকবে। অর্থাৎ অভিভাবক ঠিক করে দিতে পারবেন কোন ধরনের আধেয় স্ন্যাপচ্যাটে দেখা যাবে।

এ সুবিধা চালু করতে স্ন্যাপচ্যাটের ফ্যামিলি সেন্টারে গিয়ে ‘রেসট্রিক্ট সেনসিটিভ কনটেন্ট’ নামের সুবিধা চালু করতে হবে। এটি চালু হওয়ার পর স্ন্যাপচ্যাটের ভিডিও বিভাগ স্পটলাইট এবং স্টোরিতে ব্লক করা আধেয় দেখা যাবে না। তবে এ সেবা চালু হলে চ্যাট, স্ন্যাপস ও সার্চ বিভাগে আধেয় আদান-প্রদানের বেলায় কোনো প্রভাব পড়বে না।

এ পরিবর্তনের অংশ হিসেবে প্রথমবারের মতো নির্মাতাদের জন্য আধেয় নীতিমালা প্রকাশ করতে যাচ্ছে স্ন্যাপচ্যাট। এ নীতিমালা চালু হলে স্টোরি ও স্পটলাইটে কোন ধরনের আধেয়কে সংবেদনশীল হিসেবে বিবেচনা করা হবে ও কোন ধরনের আধেয়কে সুপারিশ আকারে প্রদর্শন করা হবে, তা নির্মাতারা জানতে পারবেন। স্ন্যাপচ্যাট স্টারস কর্মসূচির নির্দিষ্ট কিছু নির্মাতা ও গণমাধ্যমে এ নীতিমালা প্রকাশ করলেও এখন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সবার জন্য উন্মুক্ত করবে প্রতিষ্ঠানটি।

স্ন্যাপচ্যাটে এখন হিংসাত্মক, সহিংস, আইন পরিপন্থী, ক্ষতিকর, প্রতারণামূলক মিথ্যা তথ্য সংবলিত আধেয় নিষিদ্ধ। তবে নতুন এ নীতিমালার ফলে বিভিন্ন বিভাগের অধীনে সুনির্দিষ্টভাবে আধেয়কে সংবেদনশীল হিসেবে বিবেচনা করা যাবে। এ ছাড়া কোন আধেয় কিশোর-কিশোরীদের জন্য নিয়ন্ত্রিত থাকবে এবং কোন আধেয় সুপারিশ আকারে প্রদর্শিত হবে তা–ও সুনির্দিষ্ট করা যাবে।
সূত্র: টেকক্রাঞ্চ