বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তাঁর কবিতায় লিখেছেন ‘সহজ কথায় লিখতে আমায় কহ যে, সহজ কথা যায় না লেখা সহজে।’

অনেক কঠিন কথা সহজে বলা গেলেও ‘আমি তোমাকে ভালোবাসি’ এই তিনটি শব্দ ভালোবাসার মানুষকে বলা যে কত কঠিন একজন প্রেমিকের চেয়ে ভালো আর কে জানে। বাধা, ভয়, লজ্জা, জড়তা দূর করে যাঁরা নিজের কথা জানাতে পারছেন না প্রিয় মানুষকে, তাঁরা সহজেই প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে নিজের মনের কথা জানান দিতে পারেন প্রিয় মানুষকে। ভার্চ্যুয়াল মাধ্যমে সত্যিকারের ভালোবাসার প্রকাশ ঘটানো যায় সহজে।

এ ক্ষেত্রে ফেসবুক রিলস, ইউটিউব শর্টস, টিকটক এবং ইনস্টাগ্রামের মতো বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম হতে পারে ডাকপিয়ন। এ বিষয়ে রাজধানীর একটি বেসকরকারি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ইসরাত ফারহা বলেন, ‘দিন বদলের পাশাপাশি মানুষের ভালোবাসার প্রকাশে নতুনত্ব এসেছে। এ ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা পালন করছে প্রযুক্তি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের কল্যাণে পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে প্রিয়জনের কাছে নিজের মনের কথাটি যে কেউ চাইলেই পৌঁছে দিতে পারছে। কেউ আবার ভিডিও বা কবিতার মাধ্যমে নিজের ভালোবাসার কথা প্রিয়জনের কাছে তুলে ধরছে।’

প্রেমের কবিতা

আপনার ভালোবাসার মানুষটি যদি সাহিত্যপ্রেমী হন, তবে এই কৌশল আপনার জন্য খুব কার্যকরী হবে। তাঁকে নিয়ে একটি কবিতা বা ছোট গল্প দিয়ে ভিডিও বা থিম তৈরি করতে পারেন। এরপর সেটি ফেসবুক রিলস, ইউটিউব শর্টস, টিকটক কিংবা ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে চমকে দিতে পারেন ভালোবাসার মানুষকে। কবিতা লিখতে না পারলেও ক্ষতি নেই, বিখ্যাত কোনো কবিতা দিয়েই ভিডিও তৈরি করে প্রেম নিবেদন করা যাবে।

রোমান্টিক গান

রোমান্টিক গান পছন্দ করেন না—এমন মানুষ পাওয়া কঠিন। আর গান পছন্দ করা মানুষটি যদি হয় আপনার স্বপ্নের মানুষ, তাহলে তো কথাই নেই। প্রযুক্তি ব্যবহার করে আপনি গানের মাধ্যমে প্রেম নিবেদন করতে পারেন। ভয় পেলে গেলেন! ভাবছেন আপনার গলা ভালো না। কীভাবে গান গেয়ে প্রিয় মানুষটিকে জানান দেবেন ভালোবাসার কথা। আপনার বেসুরে গলায় সুর এনে দেবে প্রযুক্তি। আপনার প্রিয় মানুষটি পছন্দ করে এমন একটি গানের সঙ্গে রিলস বা শর্টস বানিয়ে ফেলতে পারেন।

ইমোজিতে আবেগের প্রকাশ

অনলাইনে বার্তা লিখে লিখে আদান–প্রদান যেমন জনপ্রিয়, তেমনি এর আবেদনও বেশ। এসব বার্তায় শব্দ, বাক্য লেখার পাশাপাশি নানা রকম প্রতীকের ব্যবহার আরও জনপ্রিয়। ইমোশন ও আইকন মিলে নাম হয়েছে ইমোটিকন। ইমোটিকন থেকে ইমোজি। এখনকার ইমোজিগুলো ইউনিকোড–সমর্থিত হওয়ায় সব স্মার্টফোন, ল্যাপটপ, ডেস্কটপ থেকে ব্যবহার করা যায়। ইমোজিপিডিয়া ডটওআরজি ওয়েবসাইটের হিসাবে তিন হাজার ৬৩৩ টি ইমোজি ইউনিকোড সমর্থন করে। এই হিসাব ২০২১ সালের। আর এত এত ইমোজির মধ্যে ২ নম্বরে আছে লাল হৃদয় বা রেড হার্ট ইমোজি। হৃদয়াকৃতির আরও অনেক ইমোজি আছে, অভিব্যক্তি অনুযায়ী রং, নকশা একটু ভিন্ন। তো ভালোবাসার প্রকাশে ইমোজি হতে পারে মোক্ষম অস্ত্র।