বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, তাদের ভেঞ্চার ক্যাপিটাল কোম্পানি স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেড প্রি–সিরিজ রাউন্ডে সোয়্যাপে বিনিয়োগ করেছে। আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ বলেছেন, বাংলাদেশ স্টার্টআপ ও উদ্ভাবনের জন্য একটি উর্বর ভূমিতে পরিণত হয়েছে। উদ্ভাবনী স্টার্টআপগুলোকে সমর্থন দিতে সরকার স্টার্টআপ বাংলাদেশ ভেঞ্চার ক্যাপিটাল কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেছে। স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার জন্য প্রযুক্তিসংক্রান্ত স্টার্টআপে বিনিয়োগের মাধ্যমে স্টার্টআপ ইকোসিস্টেমকে এগিয়ে নিতে স্টার্টআপ বাংলাদেশের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

সোয়্যাপের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহপ্রতিষ্ঠাতা পারভেজ হোসেন বলেন, ব্যবহৃত পণ্যের জন্য একটি ইকোসিস্টেম তৈরিতে এবং দেশের নিম্ন ও মধ্যম আয়ের পরিবারগুলোকে সাশ্রয়ী মূল্যে প্রযুক্তিসুবিধা পাওয়ার সুযোগ করে দিচ্ছে সোয়্যাপ।

সরকার ৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দকৃত মূলধন দিয়ে ২০২০ সালে স্টার্টআপ বাংলাদেশ শুরু করে। এখন পর্যন্ত তারা ২০টি প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ করেছে।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, স্টার্টআপ বাংলাদেশের চেয়ারম্যান ও আইসিটি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম, স্টার্টআপ বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সামি আহমেদসহ প্রমুখ।