default-image

আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলে লোগার প্রদেশে গাড়িবোমা হামলায় অন্তত ৩০ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে অন্তত ৯০ জন। স্থানীয় সময় শুক্রবার সন্ধ্যায় এই হামলার ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে এই হামলার দায় কেউ স্বীকার করেনি।

নিহতদের মধ্যে শিক্ষার্থীরা আছে বলে জানা গেছে। লোগার প্রদেশের রাজধানী পুয়েল–ই–আলমের একটি অতিথিশালায় এই হামলা চালানো হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, হামলায় অতিথিশালার ছাদ ধসে পড়েছে। ছাদের নিচে অনেকে আটকা পড়েছেন। হতাহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ ও জরুরি উদ্ধারকারী সংস্থার কর্মীরা। আটকে পড়াদের উদ্ধার অভিযান চলছে।

শক্তিশালী এ গাড়ি বোমা হামলার সময় আশপাশের বেশ কিছু ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। লগার প্রাদেশিক কাউন্সিলের প্রধান হাসিবুল্লাহ স্টেনেকজাই বলেন, হামলায় নিহতদের মধ্যে বেশ কিছু শিক্ষার্থী আছে। তারা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল।

বিজ্ঞাপন

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তারিক আরিয়ান বলেন, ভয়াবহ এই হামলায় ৯০ জন আহত হয়েছেন। তাদের অনেকেরই অবস্থা আশঙ্কাজনক। হামলায় আশপাশের ভবন ও হাসপাতাল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আশপাশের বেশ কিছু ভবনের ছাদ ধসে লোকজন আটকা পড়েছেন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সবাইকে উদ্ধারের তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে।

তাৎক্ষণিকভাবে এই হামলার দায় কেউ স্বীকার করেনি। তবে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা পুরোপুরি প্রত্যাহারের ঘোষণা আসার পর থেকে দেশটিতে হামলা বাড়ার আশঙ্কা করছেন বিশ্লেষকেরা। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আফগান যুদ্ধের সমাপ্তি টেনে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন।

মার্কিন সেনা প্রত্যাহার হলে আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ পুনরায় তালেবানের হাতে যাবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকেরা। প্রায় দুই দশক আগে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে অভিযানের নামে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশ আফগানিস্তানে যুদ্ধ শুরু করেন। এই যুদ্ধে দেশটির ক্ষমতায় থাকা তালেবান সরকারের পতন হয়।

বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন