default-image

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, ২০২১ সালের মাঝামাঝি সময়ের আগে বিশ্বজুড়ে ব্যাপক আকারে করোনার টিকা দেওয়ার কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে না। সংস্থাটির এক মুখপাত্র বলেছেন, আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ের আগে এ ব্যাপারে নাটকীয় কোনো উন্নতি তাঁরা আশা করছেন না।
বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, জেনেভায় এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মুখপাত্র মার্গারেট হ্যারিস এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ের আগে বিশ্বজুড়ে বিস্তৃত আকারে করোনার টিকা দেওয়ার কর্মসূচি বাস্তবায়নের কোনো আশা আমরা করছি না।’

বিজ্ঞাপন

মার্গারেট বলেন, একটি টিকা উৎপাদনের ক্ষেত্রে এর কার্যকারিতা ও এটি কতটুকু নিরাপদ—সেই বিষয়গুলো বারবার পরীক্ষা করতে হয়। এই কাজের গুরুত্ব অপরিসীম। তিনি বলেন, ‘টিকার তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল পরীক্ষার ক্ষেত্রে বেশ লম্বা সময়ের প্রয়োজন হয়। কারণ এর মধ্য দিয়েই আমরা বুঝতে পারব যে, রোগের বিরুদ্ধে টিকাটি কতটা কার্যকর এবং কতটুকু নিরাপদ।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গতকাল পর্যন্ত হালনাগাদকৃত খসড়া তালিকার তথ্যমতে, বিশ্বজুড়ে ১৭৬টি সম্ভাব্য টিকা উদ্ভাবনের কাজ চলছে। এর মধ্যে মানবদেহে পরীক্ষার বিভিন্ন পর্যায়ে রয়েছে ৩৪টি সম্ভাব্য টিকা।
করোনা মহামারির সার্বক্ষণিক তথ্য প্রকাশকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস ডট ইনফোর তথ্যমতে, বিশ্বজুড়ে গতকাল পর্যন্ত প্রায় ২ কোটি ৬৫ লাখ করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এরই মধ্যে ৮ লাখ ৭০ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থ হয়েছেন প্রায় ১ কোটি ৮৫ লাখ রোগী।

বিজ্ঞাপন
বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন