বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

শরীরের দুই শতাধিক ট্যাটু নিয়ে ঘোরাফেরা করাটা লরেনসনের জন্য সহজ ছিল না। ১৮ বছর বয়স থেকে এ জন্য বেশ ভুগেছেন তিনি। পরিবার, আত্মীয়স্বজন ও বন্ধুবান্ধব কটু কথা শুনিয়েছেন। তবে দমেননি লরেনসন। ১৮ থেকে ২৮ বছর পর্যন্ত এক দশকে ২০০-এর বেশি পছন্দের ট্যাটু শরীরের জুড়েছেন তিনি। ট্যাটুকে তিনি নিয়ে গেছেন রীতিমতো শিল্পের পর্যায়ে। সম্প্রতি নিজের দুই চোখের মণি কৃত্রিম উপায়ে কালো রং করে আরেক দফা আলোচনায় আসেন লরেনসন (২৮)। এ জন্য ৫০ হাজার ডলারের বেশি ব্যয় হয়েছে তাঁর।

তবে লরেনসনের এমন কাণ্ড মেনে নিতে পারেনি তাঁর পরিবার। সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানান, পরিবারের সদস্যরা তাঁর সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদ করেছেন। বিশেষত চেহারায় ট্যাটু করানোর পর পরিবারের সদস্যরা তাঁর সঙ্গে কথা বলাও বন্ধ করে দিয়েছেন। তবে ভক্তরা সব সময় লরেনসনকে সমর্থন জুগিয়েছেন।

এখন কেইলি নামের এক নারীকে বিয়ে করেছেন লরেনসন। কেইলি নিজেও ট্যাটুপ্রেমী। তাঁর শরীরেও ট্যাটু রয়েছে। ইনস্টাগ্রামের পোস্টে লরেনসনের ছবি আপলোড করে ক্যাপশনে কেইলি লিখেছেন, ‘আমার সুদর্শন স্বামী।’

বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন