প্রতিবেদনে ইউনেসকো জানিয়েছে, বিশ্বজুড়ে সাংবাদিক হত্যার অভিযোগ থেকে রেহাই পাওয়ার হার বেশ উচ্চ ও উদ্বেগজনক। এই হার কমিয়ে আনতে অভিযোগের বিষয়ে যথাযথ তদন্ত, দোষী ব্যক্তিদের শনাক্ত করা এবং তাঁদের বিচারের আওতায় আনার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে ইউনেসকোর মহাপরিচালক আদ্রেঁ আজুলে এক বিবৃতিতে বলেন, ‘বিশ্বজুড়ে সাংবাদিক হত্যার ঘটনাগুলোর বিচার করা না গেলে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে না। সেই সঙ্গে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে এই বিচারহীনতা নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে।’

প্রতিবেদনে ইউনেসকো আরও জানিয়েছে, সাংবাদিক হত্যায় গত এক দশকে বিশ্বজুড়ে বিচার না পাওয়ার ঘটনা ৯ শতাংশ কমে এসেছে। তবে এটা এ ধরনের ভয়াবহতা কমিয়ে আনার ক্ষেত্রে পর্যাপ্ত নয়।

সংস্থাটির দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ২০২০ ও ২০২১ সালে বিশ্বে ১১৭ জন সাংবাদিক কর্মরত অবস্থায় হত্যার শিকার হয়েছেন। একই সময়ে বিশ্বে আরও ৯১ সাংবাদিক কর্মরত না থাকা অবস্থায় হত্যার শিকার হয়েছেন। তাঁদের অনেককে পরিবারের সদস্যদের সামনে (বিশেষত সন্তানের সামনে) খুন করা হয়েছে।

বিশ্বজুড়ে সাংবাদিক হত্যা কমিয়ে আনতে দেশগুলোকে গণমাধ্যম সুরক্ষা আইন প্রণয়ন কিংবা এ–সংক্রান্ত কার্যকর নীতি বাস্তবায়ন করতে পরামর্শ দিয়েছে ইউনেসকো। সেই সঙ্গে বিচারক, আইনজীবী ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের এ–সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ চালুর সুপারিশ করা হয়েছে সংস্থাটির প্রতিবেদনে।